বহির্জাত প্রক্রিয়ার পদ্ধতিগুলি কী কী?

আজকে আমরা আমাদের আর্টিকেলে দেখবো যে বহির্জাত প্রক্রিয়ার পদ্ধতিগুলি কী কী? এই প্রশ্ন দশম শ্রেণীর পরীক্ষার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ, বহির্জাত প্রক্রিয়ার পদ্ধতিগুলি কী কী? প্রশ্নটি আপনি পরীক্ষার জন্য তৈরী করে গেলে আপনি লিখে আস্তে পারবেন।

পৃথিবীর অভ্যন্তরীণ শক্তির মাধ্যমে তৈরি পাহাড়, পর্বত, মালভূমি, এবং সমভূমিগুলি  বহির্জাত শক্তির প্রভাবে ক্রমাগত পরিবর্তিত হচ্ছে।  এই বহির্জাত শক্তিগুলি  ভূমিরূপের বিবর্তনে  গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

বহির্জাত প্রক্রিয়া বলতে বোঝায়  ভূ-পৃষ্ঠের উপরে ক্রিয়াশীল  বিভিন্ন শক্তির প্রভাবে  ভূমিরূপের পরিবর্তন ও বিবর্তন।  এই প্রক্রিয়াগুলি  দীর্ঘকাল ধরে কাজ করে  ভূ-পৃষ্ঠের  উচ্চতা, ঢাল,  আকৃতি  ইত্যাদি পরিবর্তন করে।

বহির্জাত প্রক্রিয়ার পদ্ধতিগুলি কী কী?

মূলত তিনটি পদ্ধতির মাধ্যমে বহির্জাত প্রক্রিয়া কার্যকরী হয়। যথা —

  1. অবরোহণ প্রক্রিয়া – এই প্রক্রিয়ায় ভূমিভাগের উচ্চতা ক্রমশ কমতে থাকে। যেমন — ক্ষয়জাত পর্বত।
  2. আরোহণ প্রক্রিয়া – আরোহণ কথার অর্থ ওপরে ওঠা। এই ধরনের প্রক্রিয়ায় ভূমিভাগের উচ্চতা ক্রমশ বাড়তে থাকে। নদী, হিমবাহ, বায়ুবাহিত পদার্থ সঞ্চিত হয়ে নিম্নস্থান উঁচু বা ভরাট হয়। একে আরোহণ প্রক্রিয়া বলে। যেমন — বদ্বীপ, প্লাবন সমভূমি, লোয়েস সমভূমি।
  3. জৈবিক প্রক্রিয়া – উদ্ভিদ এবং প্রাণী যখন ভূমিরূপের পরিবর্তন ঘটায় তখন তাকে জৈবিক প্রক্রিয়া বলে। জলাভূমিতে শ্যাওলা, পাতা, ফুল, ফল জমে জলাভূমি ভরাট হয়ে যায়। মানুষ পাহাড় কেটে রাস্তা বানায়, সমুদ্রে বাঁধ দিয়ে সঞ্চয়জাত ভূমিরূপ তৈরি করে। এভাবে জৈবিক প্রক্রিয়া ক্রিয়াশীল থাকে।

আরও পড়ুন, নদীর সমভূমি প্রবাহ বা মধ্যগতি কাকে বলে?

বহির্জাত প্রক্রিয়া সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর

বহির্জাত শক্তি কী?

ভূপৃষ্ঠের বাইরের শক্তি যা ভূমিরূপের পরিবর্তন ঘটায় তাকে বহির্জাত শক্তি বলে।

বহির্জাত প্রক্রিয়াগুলির প্রধান কাজ কী?

বহির্জাত প্রক্রিয়াগুলি ভূমিরূপকে ক্ষয়, বহন এবং সঞ্চয়ের মাধ্যমে পরিবর্তিত করে।

বহির্জাত প্রক্রিয়াগুলির উদাহরণ কী কী?

নদী, হিমবাহ, বায়ু, সমুদ্রতরঙ্গ, আবহাওয়া প্রক্রিয়া ইত্যাদি বহির্জাত প্রক্রিয়ার উদাহরণ।

অবরোহণ প্ৰক্ৰিয়া কী?

বহির্জাত প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারী শক্তিগুলি যেভাবে ভূপৃষ্ঠের পরিবর্তন করে সেই প্রক্রিয়াকে অবরোহণ প্রক্রিয়া বলে। আবহবিকার বা বিচূর্ণীভবন, পুঞ্জক্ষয় এবং অন্যান্য ক্ষয় প্রক্রিয়াগুলি অবরোহণ ক্রিয়ার ফল। কোন্ অঞ্চলে কী ধরনের অবরোহণ হবে তা নির্ভর করে সেখানকার জলবায়ু, শিলার প্রকৃতি, ক্ষয়কারী শক্তির কার্যক্ষমতা ইত্যাদির ওপর।

আরোহণ প্রক্রিয়া কাকে বলে?

আরোহণ প্রক্রিয়া বলতে ভূপৃষ্ঠের ওপর সঞ্চয়, অবক্ষেপণ এবং অধঃক্ষেপণের মাধ্যমে ভূমিরূপের নির্মাণ প্রক্রিয়াকে বোঝায়। এই পদ্ধতির মধ্যে দিয়ে নিম্নভূমির উচ্চতা বেড়ে যায়। পর্বতের পাদদেশে সঞ্চয়জাত ভূমিরূপ তৈরি হয়। নদী অববাহিকায় পলল ব্যজনী ও প্লাবনভূমির মতো ভূমিরূপ তৈরি হয়।

মানুষ এবং অন্যান্য জীব কীভাবে বহির্জাত শক্তির প্রক্রিয়া হিসেবে কাজ করে?

মানুষসহ সমগ্র জীবজগতও কিন্তু ক্ষয় এবং সঞ্চয়ে অংশগ্রহণ করে। জলাভূমি, লেগুনে যেসব শ্যাওলা, গাছপালা জন্মায়, ফুল, পাতা, ফল পচে গিয়ে জৈব পদার্থ তৈরি করে, তা দিয়ে জলাভূমি ভরাট হয়। মানুষ নিজেই জলাভূমি ভরাট করে, নদী, সমুদ্রে বাঁধ দিয়ে ভূমিভাগের সঞ্চয় প্রক্রিয়াকে জারি রাখে।

Rate this post


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন