বৃষ্টির জল সংরক্ষণে তামিলনাডুর ভূমিকা কতখানি?

দশম শ্রেণীর মাধ্যমিক ভূগোল পরীক্ষার জন্য “ভারতের প্রাকৃতিক পরিবেশ” অধ্যায়ের “ভারতের জলসম্পদ” বিভাগে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন হল “বৃষ্টির জল সংরক্ষণে তামিলনাডুর ভূমিকা কতখানি?”। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা এই প্রশ্নের উত্তর বিস্তারিতভাবে আলোচনা করবো।

বৃষ্টির জল সংরক্ষণে তামিলনাডুর ভূমিকা

বৃষ্টির জল সংরক্ষণে তামিলনাডুর ভূমিকা কতখানি?

বৃষ্টির জল সংরক্ষণে তামিলনাড়ু রাজ্যের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তামিলনাডু এমন একটি রাজ্য যেখানে বৃষ্টির জল সংরক্ষণ একটি জরুরি এবং বাধ্যতামূলক বিষয়। 2001 সালে এই প্রকল্পটি গৃহীত হয় এবং সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তামিলনাডুর প্রতিটি বাড়িতেই বৃষ্টির জল সংরক্ষণ করতে হবে। এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার পর পরীক্ষা করে দেখা গেছে তামিলনাডুতে ভৌমজলের সঞ্চয় বেড়েছে। তামিলনাডু নগর আইন অনুযায়ী প্রতিটি নতুন বাড়িতে বৃষ্টির জল সংরক্ষণের ব্যবস্থা রাখতে হবে। সরকার বৃষ্টির জল সংরক্ষণে নানাবিধ ব্যবস্থা নিয়েছে। এর মধ্যে –

  1. বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংগঠনের সাহায্যে জল সংরক্ষণের প্রচার চলছে।
  2. বৃষ্টির জল সংরক্ষণের জন্য নানা হোর্ডিং, ব্যানার, ফেস্টুনের সাহায্যে প্রচার চলছে।
  3. সরকারিভাবে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার চালানো হচ্ছে।
  4. বৃষ্টির জল সংরক্ষণে সরকারি সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।
  5. এইরাজ্যে 1821টি জলাভূমি সংস্কার করে তাতে 6286.84 একর জলাভূমির সম্প্রসারণ ঘটানো হয়েছে।

আজকের আর্টিকেলে আমরা জেনেছি খালের মাধ্যমে বৃষ্টির জল সংরক্ষণে তামিলনাডুর ভূমিকা কতটা গুরুত্বপূর্ণ।

এই প্রশ্নটি দশম শ্রেণীর পরীক্ষার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি মাধ্যমিক ভূগোলের পঞ্চম অধ্যায় “ভারতের প্রাকৃতিক পরিবেশ” অধ্যায়ের “ভারতের জলসম্পদ” বিভাগের অন্তর্গত।

Rate this post


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন