নদী কী কী প্রক্রিয়ায় ক্ষয়কার্য করে?

নদী, প্রকৃতির এক অপার শক্তি, কেবল জীবন ধারণের জন্য জল সরবরাহ করে না, বরং ভূমিরূপের গঠনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নদীর জলধারা, তার গতিশক্তি এবং বহনক্ষমতার সাহায্যে নদী বিভিন্নভাবে ভূমিক্ষয় করে।

এই প্রবন্ধে আমরা নদীর ক্ষয়কার্যের পাঁচটি প্রধান প্রক্রিয়া, তাদের প্রভাব এবং ভূমিরূপ গঠনে তাদের অবদান সম্পর্কে আলোচনা করবো।

নদী তার গতিপথে জলধারার সাহায্যে পাঁচভাবে ক্ষয়কার্য করে। এগুলি হল —

ক্ষয়ের প্রক্রিয়াবিবরণ
দ্রবণজনিত ক্ষয়কোনো কোনো পাথর, যেমন — চুনাপাথর, লবণ প্রভৃতি নদীর জলের সংস্পর্শে গলে গিয়ে বা দ্রবীভূত হয়ে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়।
জলপ্রবাহজনিত ক্ষয়পার্বত্য অঞ্চলে নদীখাতের নরম ও আলগা পাথরগুলি জলস্রোতের আঘাতে ক্ষয়প্রাপ্ত হয় এবং কালক্রমে ভেঙে জলস্রোতের সাহায্যে বহুদূরে বাহিত হয়।
ঘর্ষণজনিত ক্ষয়নদীর স্রোতে বাহিত পাথরগুলি পরস্পরের সাথে ঘর্ষণে এবং ঠোকাঠুকিতে ক্ষয় হয়ে যায় এবং অবশেষে ক্ষুদ্রাকার কণায় পরিণত হয়।
অবঘর্ষজনিত ক্ষয়নদীবাহিত পাথরগুলির সঙ্গে নদীখাতের ঘর্ষণ বা অবঘর্ষের ফলে নদীখাত ক্ষয়প্রাপ্ত হয় এবং নদীখাতে ছোটো ছোটো গর্তের সৃষ্টি হয়। গর্তগুলির জন্য নদীখাত আরও দ্রুত ক্ষয়ে যায়।
বুদবুদের কম্পন তরঙ্গজনিত ক্ষয়নদীর জলের মধ্যে বুদ্ধদের আকারে যে বাতাস সামান্য সময়ের জন্য অবরুদ্ধ থাকে, তা হঠাৎ নির্গত হলে যে শব্দ হয় সেই শব্দের কম্পন তরঙ্গের আঘাতেও শিলাখণ্ড চূর্ণবিচূর্ণ ও ক্ষয়প্রাপ্ত হয়।

নদীর ক্ষয়কার্য কি?

নদীর জলধারা, তার গতিশক্তি এবং বহনক্ষমতার সাহায্যে নদী বিভিন্নভাবে ভূমিক্ষয় করে। এ প্রক্রিয়াটিকে নদীর ক্ষয়কার্য বলা হয়।

নদীর ক্ষয়কার্যের প্রক্রিয়াগুলি কি কি?

নদীর ক্ষয়কার্যের পাঁচটি প্রধান প্রক্রিয়া হল:
1. দ্রবণজনিত ক্ষয়: নদীর জলের সংস্পর্শে কিছু পাথর গলে বা দ্রবীভূত হয়ে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়।
2. জলপ্রবাহজনিত ক্ষয়: জলস্রোতের আঘাতে নরম ও আলগা পাথরগুলি ভেঙে জলস্রোতের সাহায্যে বহুদূরে বাহিত হয়।
3. ঘর্ষণজনিত ক্ষয়: নদীর স্রোতে বাহিত পাথরগুলি পরস্পরের সাথে ঘর্ষণে ক্ষয় হয়ে ক্ষুদ্রাকার কণায় পরিণত হয়।
4. অবঘর্ষজনিত ক্ষয়: নদীবাহিত পাথরগুলির ঘর্ষণে নদীখাত ক্ষয়প্রাপ্ত হয় এবং ছোটো ছোটো গর্তের সৃষ্টি হয়।
5. বুদবুদের কম্পন তরঙ্গজনিত ক্ষয়: নদীর জলের বুদবুদ থেকে নির্গত শব্দের কম্পন তরঙ্গের আঘাতে শিলাখণ্ড ক্ষয়প্রাপ্ত হয়।

নদীর ক্ষয়কার্যের প্রভাব কি কি?

নদীর ক্ষয়কার্য ভূমিরূপের গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নদীর গতিশক্তি, বহনক্ষমতা এবং ক্ষয়কার্যের প্রক্রিয়াগুলি ভূমিক্ষয়ের মাধ্যমে নতুন নতুন ভূমিরূপের সৃষ্টি করে। এই ভূমিরূপগুলি আমাদের পৃথিবীর ভূ-দৃশ্যকে বৈচিত্র্যময় করে তোলে।

নদীর ক্ষয়কার্যের ফলে সৃষ্ট কিছু ভূমিরূপের উদাহরণ কি কি?

নদীর ক্ষয়কার্যের ফলে সৃষ্ট কিছু ভূমিরূপের উদাহরণ হল:
1. নদী উপত্যকা: নদীর দীর্ঘদিনের ক্ষয়কার্যের ফলে নদীর দুই পাশে গভীর খাতের সৃষ্টি হয়, যাকে নদী উপত্যকা বলে।
2. জলপ্রপাত: নদীর জলধারা যখন কোনো শক্ত পাথরের বাধার সম্মুখীন হয় তখন জলধারা উঁচু থেকে নিচে পতিত হয়ে জলপ্রপাতের সৃষ্টি করে।
3. গিরিখাত: নদীর দীর্ঘদিনের ক্ষয়কার্যের ফলে পাহাড়ি অঞ্চলে সুগভীর খাতের সৃষ্টি হয়, যাকে গিরিখাত বলে।
4. মেঘনা-যমুনা বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য: নদীর বহনক্ষমতা ও ক্ষয়কার্যের ফলে বালিয়াড়ি তৈরি হয় এবং সেখানে বনভূমি সৃষ্টি হয়।

নদীর ক্ষয়কার্য নিয়ন্ত্রণ করা কি সম্ভব?

হ্যাঁ, নদীর ক্ষয়কার্য নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।

আরও পড়ুন – গঙ্গা নদীর প্রবাহ কোথা থেকে কতদূর পর্যন্ত বিস্তৃত?

নদীর ক্ষয়কার্য ভূমিরূপের গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নদীর গতিশক্তি, বহনক্ষমতা এবং ক্ষয়কার্যের প্রক্রিয়াগুলি ভূমিক্ষয়ের মাধ্যমে নতুন নতুন ভূমিরূপের সৃষ্টি করে। এই ভূমিরূপগুলি আমাদের পৃথিবীর ভূ-দৃশ্যকে বৈচিত্র্যময় করে তোলে।

Rate this post


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন