নবম শ্রেণী – ইতিহাস – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ ও তারপর – অতি সংক্ষিপ্ত উত্তরভিত্তিক প্রশ্ন

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ বিশ্বের ইতিহাসে একটি যুগান্তকারী ঘটনা। এ যুদ্ধের ফলে বিশ্বের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক ব্যবস্থায় ব্যাপক পরিবর্তন আসে। যুদ্ধের পর বিশ্বে সাম্রাজ্যবাদের অবসান হয় এবং জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠা হয়। এসব পরিবর্তন বিশ্বকে একটি নতুন দিগন্তে নিয়ে যায়।

Table of Contents

নবম শ্রেণী - ইতিহাস - দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ ও তারপর

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে গণতান্ত্রিক আদর্শ প্রবর্তিত একটি রাষ্ট্রের নাম লেখো।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আগে গণতান্ত্রিক আদর্শ প্রবর্তিত একটি রাষ্ট্রের নাম হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

আবিসিনিয়ার বর্তমান নাম কী?

আবিসিনিয়ার বর্তমান নাম হল ইথিওপিয়া।

হেইলে সেলাসি কে ছিলেন?

হেইলে সেলাসি ছিলেন আবিসিনিয়ার সম্রাট। তিনি ১৯৩০ থেকে ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন। তিনি ছিলেন একজন উদার গণতান্ত্রিক নেতা।

কত খ্রিস্টাব্দে ওয়াল ওয়াল ঘটনা ঘটেছিল?

১৯৩৪ খ্রিস্টাব্দের ৫ ডিসেম্বর ওয়াল ওয়াল ঘটনা ঘটেছিল। এই ঘটনাটি ইতালির সাথে আবিসিনিয়ার মধ্যে সীমান্ত সংঘর্ষের সূত্রপাত করেছিল।

ইটালি কত খ্রিস্টাব্দে আবিসিনিয়া দখল করেছিল?

ইতালি ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে আবিসিনিয়া দখল করেছিল। এই দখল অভিযানের ফলে দ্বিতীয় ইতালীয়-আবিসিনিয়ার যুদ্ধ শুরু হয়েছিল।

ইটালি কত খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘ ত্যাগ করে?

ইতালি ১৯৩৭ খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘ ত্যাগ করে।

কত খ্রিস্টাব্দে ইটালি আলবেনিয়া আক্রমণ করে?

১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দে ইতালি আলবেনিয়া আক্রমণ করে। এই আক্রমণের ফলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সূত্রপাত হয়েছিল।

গ্রিসের কোন্ দ্বীপটি মুসোলিনি দখল করেন?

গ্রিসের কারফু দ্বীপটি মুসোলিনি দখল করেন।

জাপান কবে মাঞ্চুরিয়া আক্রমণ করেছিল?

জাপান ১৯৩১ খ্রিস্টাব্দে মাঞ্চুরিয়া আক্রমণ করেছিল। এই আক্রমণের ফলে প্রথম চীন-জাপান যুদ্ধ শুরু হয়েছিল।

জাপান মাঞ্চুরিয়া দখল করে তার নাম কী রেখেছিল?

জাপান মাঞ্চুরিয়া দখল করে তার নাম রেখেছিল মাঞ্জুকুয়ো।

জাপান কত খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘের সদস্যপদ ত্যাগ করে?

জাপান ১৯৩৩ খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘের সদস্যপদ ত্যাগ করে।

হিটলারের বিদেশনীতির মূল লক্ষ্য কী ছিল?

হিটলারের বিদেশনীতির মূল লক্ষ্য ছিল পূর্ব ইউরোপে জার্মানির জন্য এক নতুন ঔপনিবেশিক সাম্রাজ্য স্থাপন করা।

জার্মানি কত খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘ ত্যাগ করে?

জার্মানি ১৯৩৩ খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘ ত্যাগ করে।

পোল-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি কত খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়?

পোল-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি ১৯৩৪ খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়।

পোল-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি কত বছরের জন্য স্বাক্ষরিত হয়?

পোল-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি ১০ বছরের জন্য স্বাক্ষরিত হয়।

কত খ্রিস্টাব্দে জার্মানি সার ও রাইন অঞ্চল পুনরুদ্ধার করে?

১৯৩৫ থেকে ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে জার্মানি সার ও রাইন অঞ্চল পুনরুদ্ধার করে।

কত খ্রিস্টাব্দে ইঙ্গ-জার্মান নৌ-চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়?

১৯৩৫ খ্রিস্টাব্দে ইঙ্গ-জার্মান নৌ-চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

কত খ্রিস্টাব্দে স্পেনের গৃহযুদ্ধ হয়েছিল?

১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে স্পেনের গৃহযুদ্ধ হয়েছিল।

কোন্ যুদ্ধকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ক্ষুদ্র সংস্করণ বা ক্ষুদ্র বিশ্বযুদ্ধ বলা হয়?

স্পেনের গৃহযুদ্ধকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ক্ষুদ্র সংস্করণ বা ক্ষুদ্র বিশ্বযুদ্ধ বলা হয়।

জেনারেল ফ্রাঙ্কো কোন্ দেশের শাসক ছিলেন?

জেনারেল ফ্রাঙ্কো স্পেনের শাসক ছিলেন।

স্পেনে কার নেতৃত্বে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল?

স্পেনে জেনারেল ফ্রাঙ্কোর নেতৃত্বে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

অ্যান্টি-কমিন্টার্ন চুক্তি কাদের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

অ্যান্টি-কমিন্টার্ন চুক্তি জার্মানি ও জাপানের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

অ্যান্টি-কমিন্টার্ন চুক্তি কত খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

অ্যান্টি-কমিন্টার্ন চুক্তি ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে রোম-বার্লিন অক্ষচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে রোম-বার্লিন অক্ষচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

রোম-বার্লিন অক্ষচুক্তি কাদের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

রোম-বার্লিন অক্ষচুক্তি মুসোলিনি ও হিটলারের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

রোম-বার্লিন-টোকিও অক্ষজোট কত খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

রোম-বার্লিন-টোকিও অক্ষজোট ১৯৩৭ খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

জার্মানি ও ইটালি ছাড়া কোন্ রাষ্ট্র অক্ষজোটের সদস্য ছিল?

জার্মানি ও ইটালি ছাড়া জাপান অক্ষজোটের সদস্য ছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে জার্মানবাহিনী অস্ট্রিয়া দখল করেছিল?

১৯৩৮ খ্রিস্টাব্দে জার্মানবাহিনী অস্ট্রিয়া দখল করেছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে মিউনিখ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়?

১৯৩৮ খ্রিস্টাব্দে মিউনিখ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

মিউনিখ চুক্তি কাদের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়?

ইংল্যান্ড ও ফ্রান্সের সাথে ইটালি ও জার্মানির মিউনিখ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

মিউনিখ চুক্তির ফলে হিটলার কোন অঞ্চল দখল করেন?

মিউনিখ চুক্তির ফলে হিটলার চেকোশ্লোভাকিয়ার সুদেতান অঞ্চল দখল করেন।

হিটলারের চেকোশ্লোভাকিয়া সম্প্রসারণের পরিকল্পনা কী নামে পরিচিত?

হিটলারের চেকোশ্লোভাকিয়া সম্প্রসারণের পরিকল্পনা অপারেশন গ্রিন (Operation Green) নামে পরিচিত।

কোন্ কোন্ দেশ জার্মানির ক্ষেত্রে তোষণনীতি গ্রহণ করেছিল?

ইংল্যান্ড ও ফ্রান্স জার্মানির ক্ষেত্রে তোষণনীতি গ্রহণ করেছিল।

তোষণনীতির উদ্গাতা কে ছিলেন?

তোষণনীতির উদ্গাতা ছিলেন নেভিল চেম্বারলেন।

কোন ঘটনা তোষণনীতির অসারতা প্রমাণ করে?

১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দের মার্চ মাসে হিটলার কর্তৃক সমগ্র চেকোশ্লোভাকিয়া দখল ইঙ্গ-ফরাসি পক্ষের তোষণনীতির অসারতা প্রমাণ করে।

রুশ-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি কোন্ কোন্ দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

রুশ-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি রাশিয়া ও জার্মানির মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

রুশ-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি কত খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল?

রুশ-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি ১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দে স্বাক্ষরিত হয়েছিল।

লিটল কমিশন কবে গঠিত হয়েছিল?

জাপান কর্তৃক মাঞ্জুরিয়া দখলের ঘটনার পদক্ষেপ হিসেবে জাতিসংঘ ১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দে লিটল কমিশন গঠন করেছিল।

হিটলার কবে পোল্যান্ড আক্রমণ করেন?

হিটলার ১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দের ১ সেপ্টেম্বর পোল্যান্ড আক্রমণ করেন।

হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণের সাংকেতিক নাম কী?

হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণের সাংকেতিক নাম ছিল অপারেশন হোয়াইট (Operation White)।

হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণের মূল কারণ কী?

হিটলার পোল্যান্ডের কাছে পোলিশ করিডর দাবি করলে পোল্যান্ড তা দিতে রাজি না হওয়ায় হিটলার পোল্যান্ড আক্রমণ করেন।

হিটলার কোন্ বন্দরের সাথে যোগাযোগের জন্য পোলিশ করিডর দাবি করেন?

হিটলার ডানজিগ বন্দরের সাথে যোগাযোগের জন্য পোলিশ করিডর দাবি করেন।

হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণকালে কারা পোল্যান্ডকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছিল?

হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণকালে ব্রিটেন ও ফ্রান্স পোল্যান্ডকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসে।

কোন ঘটনা জাতিসংঘের পতনকে চিহ্নিত করে?

১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দে হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণ জাতিসংঘের পতনকে চিহ্নিত করে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রত্যক্ষ কারণ কী ছিল?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রত্যক্ষ কারণ ছিল হিটলার কর্তৃক পোল্যান্ড আক্রমণ।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ কবে ও কীভাবে শুরু হয়?

১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দের ১ সেপ্টেম্বর হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সূচনা হয়।

অক্ষশক্তি কাদের নিয়ে গঠিত হয়?

অক্ষশক্তি ইটালি, জার্মানি ও জাপানকে নিয়ে গঠিত হয়।

One by one নীতি কে গ্রহণ করেছিলেন?

One by one নীতি হিটলার গ্রহণ করেছিলেন।

ব্রিটেনের যুদ্ধ কাদের মধ্যে হয়েছিল?

ব্রিটেনের যুদ্ধ জার্মানি ও ব্রিটেনের মধ্যে হয়েছিল।

কোন চুক্তি ভঙ্গ করে হিটলার রাশিয়া আক্রমণ করেন?

রুশ-জার্মান অনাক্রমণ চুক্তি ভঙ্গ করে হিটলার রাশিয়া আক্রমণ করেন।

হিটলার কবে রাশিয়া আক্রমণ করেন?

হিটলার ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দের ২২ জুন রাশিয়া আক্রমণ করেন।

জার্মানির রাশিয়া আক্রমণের সাংকেতিক নাম কী?

জার্মানির রাশিয়া আক্রমণের সাংকেতিক নাম ছিল অপারেশন বারবারোসা (Operation Barbarossa)।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে হিটলারের বিরুদ্ধে রাশিয়ার গৃহীত নীতি কী নামে পরিচিত?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে হিটলারের বিরুদ্ধে রাশিয়ার গৃহীত নীতি পোড়ামাটির নীতি নামে পরিচিত।

মার্শাল ঝুকভ কে ছিলেন?

মার্শাল ঝুকভ ছিলেন রুশ সেনাপতি।

লেনিনগ্রাডের লড়াই কত খ্রিস্টাব্দে হয়েছিল?

লেনিনগ্রাডের লড়াই হয়েছিল ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দে।

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধ কত খ্রিস্টাব্দে শুরু হয়?

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধ ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দে শুরু হয়।

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধ কাদের মধ্যে হয়েছিল?

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধ সোভিয়েত রাশিয়া ও জার্মানির মধ্যে হয়েছিল।

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধে কে জয়লাভ করে?

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধে রাশিয়া জয়লাভ করে।

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধে জার্মানি কার কাছে আত্মসমর্পণ করে?

স্ট্যালিনগ্রাডের যুদ্ধে জার্মানি মার্শাল ঝুকভের কাছে আত্মসমর্পণ করে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় কোন দেশকে গণতন্ত্রের অস্ত্রাগার বলা হয়?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে গণতন্ত্রের অস্ত্রাগার বলা হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় কোন্ দেশ ক্যাশ অ্যান্ড ক্যারি নীতি গ্রহণ করে?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ক্যাশ অ্যান্ড ক্যারি নীতি গ্রহণ করে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কত খ্রিস্টাব্দে লেন্ড লিজ আইন পাস হয়?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দে লেন্ড লিজ আইন পাস হয়।

কে লেন্ড লিজ আইন ঘোষণা করেন?

মার্কিন রাষ্ট্রপতি রুজভেল্ট লেন্ড লিজ আইন ঘোষণা করেন।

আইজেন হাওয়ার কে ছিলেন?

আইজেন হাওয়ার ছিলেন মার্কিন সেনাপতি।

জাপান কত খ্রিস্টাব্দে পার্ল হারবার আক্রমণ করেছিল?

জাপান ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দে পার্ল হারবার আক্রমণ করেছিল।

জাপান পার্ল হারবারে কাদের নৌ-ঘাঁটি ধ্বংস করেছিল?

জাপান পার্ল হারবারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নৌ-ঘাঁটি ধ্বংস করেছিল।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যোগদান করে?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দের ৮ ডিসেম্বর জাপানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে যোগদান করে।

হিরোশিমা ও নাগাসাকি শহর দুটি কোথায় অবস্থিত?

হিরোশিমা ও নাগাসাকি শহর দুটি জাপানে অবস্থিত।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে কোন্ দেশ হিরোশিমা ও নাগাসাকির উপর পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করে?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হিরোশিমা ও নাগাসাকির উপর পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করে।

আমেরিকা কত খ্রিস্টাব্দে জাপানের হিরোশিমা ও নাগাসাকিতে পরমাণু বোমা নিক্ষেপ করেছিল?

আমেরিকা ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ৬ আগস্ট হিরোশিমা ও ৯ আগস্ট নাগাসাকিতে পরমাণু বোমা নিক্ষেপ করেছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে জার্মানি মিত্রপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করেছিল?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ৭ মে জার্মানি মিত্রপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করেছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে জাপান মিত্রপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করে?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ২ সেপ্টেম্বর জাপান মিত্রপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করে।

কত খ্রিস্টাব্দে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়।

মিত্রপক্ষ কবে বিজয় দিবস (VE Day) পালন করে?

মিত্রপক্ষ ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ৮ মে বিজয় দিবস (VE Day) পালন করে।

V E Day কথার পুরো অর্থ কী?

V E Day কথার পুরো অর্থ হল Victory in Europe Day

ডি ডে (D Day) কথার অর্থ কী?

ডি ডে কথার অর্থ হল মুক্তি দিবস বা Day of Deliverance

ডি ডে (D Day) বলতে কোন তারিখটি বোঝায়?

ডি ডে (D Day) বলতে ১৯৪৪ খ্রিস্টাব্দের ৬ জুন তারিখটি বোঝায়।

কার পতনের ফলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়?

জাপানের পতনের ফলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়।

কার আত্মসমর্পণের ফলে ইউরোপে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়?

জার্মানির আত্মসমর্পণের ফলে ইউরোপে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়।

কার আত্মসমর্পণের ফলে প্রাচ্য ভূখণ্ডে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়?

জাপানের আত্মসমর্পণের ফলে প্রাচ্য ভূখণ্ডে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অবসান হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে জাপানের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন হিদেকি তোজো।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন উইনস্টন চার্চিল।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন হিদেকি তোজো। তিনি ১৯৪১ সালের অক্টোবর থেকে ১৯৪৪ সালের জুলাই পর্যন্ত জাপানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন উইনস্টন চার্চিল। তিনি ১৯৪০ সালের মে থেকে ১৯৪৫ সালের জুলাই পর্যন্ত ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় আমেরিকার রাষ্ট্রপতি কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ছিলেন ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্ট। তিনি ১৯৩৩ সালের মার্চ থেকে ১৯৪৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ছিলেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন দালাদিয়ার। তিনি ১৯৩৮ সালের জুন থেকে ১৯৪০ সালের মার্চ পর্যন্ত ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মানির চ্যান্সেলর কে ছিলেন?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মানির চ্যান্সেলর ছিলেন অ্যাডলফ হিটলার। তিনি ১৯৩৩ সালের জানুয়ারি থেকে ১৯৪৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত জার্মানির চ্যান্সেলর ছিলেন।

ইয়াল্টা সম্মেলন কবে হয়েছিল?

ইয়াল্টা সম্মেলন ১৯৪৫ সালের ৪ঠা থেকে ১১ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ইউক্রেনের ইয়াল্টা শহরে হয়েছিল।

পোটসডাম সম্মেলন কবে হয়েছিল?

পোটসডাম সম্মেলন ১৯৪৫ সালের ১৭ই জুলাই থেকে ২ আগস্ট পর্যন্ত জার্মানিতে পোটসডাম শহরে হয়েছিল।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ফলে কাদের শক্তি ও মর্যাদা হ্রাস পেয়েছিল?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ফলে ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি ও ইটালির শক্তি ও মর্যাদা হ্রাস পেয়েছিল।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ফলে কাদের শক্তি ও মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছিল?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ফলে আমেরিকা ও রাশিয়ার শক্তি ও মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছিল।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর কোন্ কোন্ দেশে সাম্যবাদী ভাবধারার প্রসার হয়েছিল?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সোভিয়েত রাশিয়া, চিন প্রভৃতি দেশে সাম্যবাদী ভাবধারার প্রসার হয়েছিল।

দ্বি-মেরু বিশ্বের আবির্ভাব হয় কখন?

দ্বি-মেরু বিশ্বের আবির্ভাব হয় দ্বিতীয় বিশযুদ্ধের অবসানের পর।

NATO – র পুরো কথাটি লেখো।

NATO-র পুরো কথাটি হল North Atlantic Treaty Organisation।

ওয়ারশ চুক্তি কাদের মধ্যে গড়ে ওঠে?

রাশিয়া ও পূর্ব ইউরোপের সাম্যবাদী দেশগুলি নিয়ে ওয়ারশ চুক্তি গড়ে ওঠে।

SEATO – র পুরো কথাটি লেখো।

SEATO-র পুরো কথাটি হল South East Asia Treaty Organisation।

CENTO – র পুরো কথাটি লেখো।

CENTO-র পুরো কথাটি হল Central Treaty Organisation।

তৃতীয় বিশ্ব বলতে কী বোঝো?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তীকালে সদ্য স্বাধীনতাপ্রাপ্ত দেশগুলি তৃতীয় বিশ্ব নামে পরিচিত।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সঙ্গে কোন্ কোন্ সাগর-মহাসাগরের নাম যুক্ত?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সঙ্গে প্রশান্ত মহাসাগর, ভূমধ্যসাগর ও আটল্যান্টিক মহাসাগরের নাম যুক্ত।

একটি ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজের নাম লেখো।

একটি ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজের নাম হল কারেজার্স।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত মানুষের সংখ্যা কত?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত মানুষের সংখ্যা হল প্রায় ৫ কোটি।

আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তীকালে কোন্ সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়?

আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তীকালে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ প্রতিষ্ঠিত হয়।

এই অধ্যায়টি পড়ে শিক্ষার্থীরা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ সম্পর্কে একটি সামগ্রিক ধারণা লাভ করতে পারবে। শিক্ষার্থীরা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণ, ঘটনাপ্রবাহ, ফলাফল এবং তার পরবর্তী ঘটনাবলী সম্পর্কে জানতে পারবে।

Rate this post


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন