নবম শ্রেণী – ইতিহাস – জাতিসংঘ এবং সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ – অতি সংক্ষিপ্ত উত্তরভিত্তিক প্রশ্ন

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্বের শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৪৫ সালের ২৪ অক্টোবর ৫১টি দেশের স্বাক্ষরে জাতিসংঘের সনদ গৃহীত হয় এবং ২৪ অক্টোবরকে জাতিসংঘ দিবস হিসেবে পালন করা হয়। জাতিসংঘের মূল লক্ষ্য হল বিশ্বশান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা করা, মানবাধিকার রক্ষা করা, অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন করা, আন্তর্জাতিক আইনের শাসনের প্রসার ঘটানো এবং জাতিসংঘের সদস্য দেশগুলির মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলা।

Table of Contents

নবম-শ্রেণী-ইতিহাস-জাতিসংঘ-এবং-সম্মিলিত-জাতিপুঞ্জ

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তীকালে বিশ্বশান্তি রক্ষার উদ্দেশ্যে গঠিত সংস্থাটির নাম কী?

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তীকালে বিশ্বশান্তি রক্ষা করার উদ্দেশ্যে গঠিত সংস্থাটির নাম হল জাতিসংঘ বা রাষ্ট্রসংঘ বা The League of Nation

আধুনিক বিশ্বের প্রথম আন্তর্জাতিক সংগঠন কোন্টি?

আধুনিক বিশ্বের প্রথম আন্তর্জাতিক সংগঠন হল জাতিসংঘ।

কোন্ সম্মেলনে জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার কথা বলা হয়েছে?

প্যারিসের শান্তি সম্মেলনে জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার কথা বলা হয়েছে।

জাতিসংঘ কত খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয়?

জাতিসংঘ ১৯১৯ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয়।

জাতিসংঘের জনক কাকে বলা হয়?

জাতিসংঘের জনক বলা হয় উড্রো উইলসনকে (Woodrow Wilson)|

উড্রো উইলসন কে ছিলেন?

উড্রো উইলসন ছিলেন আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি।

উড্রো উইলসন কবে চোদ্দো দফা শর্ত ঘোষণা করেছিলেন?

উড্রো উইলসন ১৯১৮ খ্রিস্টাব্দের ৮ জানুয়ারি চোদ্দো দফা শর্ত ঘোষণা করেছিলেন।

উড্রো উইলসনের চোদ্দো দফা শর্তের কত নম্বর শর্তে জাতিসংঘ গঠনের কথা উল্লেখ করা হয়?

উড্রো উইলসনের চোদ্দো দফা শর্তের চোদ্দো নম্বর শর্তে জাতিসংঘ গঠনের কথা উল্লেখ করা হয়।

উড্রো উইলসনের চোদ্দো দফা শর্তের চোদ্দোতম শর্তে কী বলা হয়েছিল?

উড্রো উইলসনের চোদ্দো দফা শর্তের চোদ্দোতম শর্তে বলা হয়েছিল যে, বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠা ও নিরাপত্তার জন্য একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান গঠন করা হবে।

লিগ কভেনান্ট কী?

লিগ কভেনান্ট হল জাতিসংঘের খসড়া সংবিধান।

কত খ্রিস্টাব্দে লিগ কভেনান্ট প্রস্তুত করা হয়?

১৯১৯ খ্রিস্টাব্দে লিগ কভেনান্ট প্রস্তুত করা হয়।

লিগ কভেনান্ট বা লিগের সনদে ক-টি ধারা ছিল?

লিগ কভেনান্ট বা লিগের সনদে ২৬টি ধারা ছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘের চুক্তিপত্রটি গৃহীত হয়?

১৯১৯ খ্রিস্টাব্দের ২৮ এপ্রিল জাতিসংঘের চুক্তিপত্রটি গৃহীত হয়।

কোন্ দিনটি জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠা দিবস হিসেবে পরিচিত?

১৯১৯ খ্রিস্টাব্দের ২৮ এপ্রিল দিনটি জাতিসংঘের প্রতিষ্ঠা দিবস হিসেবে পরিচিত।

কত খ্রিস্টাব্দে লিগের প্রথম অধিবেশন বসে?

১৯২০ খ্রিস্টাব্দের ১০ জানুয়ারি লিগের প্রথম অধিবেশন বসে।

জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার প্রধান উদ্দেশ্য কী ছিল?

জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার প্রধান উদ্দেশ্য ছিল বিশ্বশান্তি ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা করা।

জাতিসংঘের সদর দপ্তর বা প্রধান কার্যালয় কোথায় ছিল?

জাতিসংঘের সদর দপ্তর বা প্রধান কার্যালয় ছিল সুইজারল্যান্ডের জেনেভা শহরে।

জাতিসংঘের প্রথম অধিবেশনে ক-টি সদস্য রাষ্ট্র যোগদান করেছিল?

জাতিসংঘের প্রথম অধিবেশনে ৪২টি সদস্য রাষ্ট্র যোগদান করেছিল।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রাক্কালে জাতিসংঘের সদস্যসংখ্যা কত ছিল?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রাক্কালে জাতিসংঘের সদস্যসংখ্যা ছিল ৪৬।

জাতিসংঘের সনদ অনুযায়ী ক-টি প্রধান সংস্থা নিয়ে জাতিসংঘ গঠিত হয়েছিল?

জাতিসংঘের সনদ অনুযায়ী তিনটি প্রধান সংস্থা নিয়ে জাতিসংঘ গঠিত হয়েছিল।

জাতিসংঘের সাধারণ সভা কাদের নিয়ে গঠিত হত?

জাতিসংঘের সাধারণ সভা লিগের চুক্তিপত্রে স্বাক্ষরকারী প্রত্যেক সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধি নিয়ে গঠিত হত।

জাতিসংঘের সাধারণ সভায় সদস্য রাষ্ট্রের কতজন করে প্রতিনিধি থাকে?

জাতিসংঘের সাধারণ সভায় সদস্য রাষ্ট্রের তিনজন করে প্রতিনিধি থাকে।

জাতিসংঘের সাধারণ সভার কাজ কী ছিল?

জাতিসংঘের সাধারণ সভার কাজ ছিল – বিশ্বশান্তি, নিরাপত্তা, সংখ্যালঘু, রাজনৈতিক সমস্যা ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ।

বছরে কমপক্ষে কতবার সাধারণ সভার অধিবেশন আহ্বান করা হত?

বছরে কমপক্ষে ১ বার সাধারণ সভার অধিবেশন আহ্বান করা হত।

জাতিসংঘের কর্ম পরিচালনার মূল দায়িত্ব ছিল কার উপর?

জাতিসংঘের কর্ম পরিচালনার মূল দায়িত্ব ছিল লিগ পরিষদের উপর।

জাতিসংঘের লিগ পরিষদে প্রথমে কত জন স্থায়ী সদস্য ছিল?

জাতিসংঘের লিগ পরিষদে প্রথমে ৫ জন স্থায়ী সদস্য ছিল।

লিগ পরিষদের স্থায়ী সদস্য কারা?

লিগ পরিষদের স্থায়ী সদস্যরা হল- ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, ইটালি, জাপান ও আমেরিকা।

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র কেন লিগ পরিষদে যোগদান করেনি?

আমেরিকার সরকার জাতিসংঘে যোগদানের চুক্তি অনুমোদন না করায় আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র লিগ পরিষদে যোগদান করেনি।

কারা নতুন সদস্য হিসেবে লিগ পরিষদে যোগদান করে?

জার্মানি ও সোভিয়েত রাশিয়া নতুন সদস্য হিসেবে লিগ পরিষদে যোগদান করে।

বছরে কমপক্ষে কতবার লিগ পরিষদের অধিবেশন বসত?

বছরে কমপক্ষে ৩ বার লিগ পরিষদের অধিবেশন বসত।

জাতিসংঘের প্রথম সেক্রেটারি জেনারেল বা মহাসচিব কে ছিলেন?

জাতিসংঘের প্রথম সেক্রেটারি জেনারেল বা মহাসচিব ছিলেন স্যার জেমস এরিক ডুমন্ড।

জাতিসংঘের নির্বাচনে সদস্য রাষ্ট্রগুলি ক-টি ভোট দিতে পারত?

জাতিসংঘের নির্বাচনে সদস্য রাষ্ট্রগুলি ১টি করে ভোট দিতে পারত।

PCIJ – এর পুরো নাম কী?

PCIJ – এর পুরো নাম হল Permanent Court of International Justice

আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের প্রধান কার্যালয় কোথায় ছিল?

আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের প্রধান কার্যালয় ছিল হল্যান্ডের হেগ শহরে।

ILO – এর পুরো নাম কী?

ILO-এর পুরো নাম হল International Labour Organisation

আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংস্থার প্রধান কার্যালয় কোথায় ছিল?

আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংস্থার প্রধান কার্যালয় ছিল সুইজারল্যান্ডের জেনেভা শহরে।

জাতিসংঘের চূড়ান্ত গৌরবের যুগ কোন্ সময়কালকে বলা হয়?

জাতিসংঘের চূড়ান্ত গৌরবের যুগ ১৯২৪ থেকে ১৯৩০ খ্রিস্টাব্দ সময়কালকে বলা হয়।

জেনেভা প্রোটোকল কী?

জেনেভা প্রোটোকল হল ১৯২৪ খ্রিস্টাব্দে গ্রিস ও চেকোশ্লোভাকিয়ার প্রতিনিধিদ্বয় রচিত একটি দলিল।

কত খ্রিস্টাব্দে জেনেভা প্রোটোকল স্বাক্ষরিত হয়?

১৯২৪ খ্রিস্টাব্দে জেনেভা প্রোটোকল স্বাক্ষরিত হয়।

জেনেভা প্রোটোকলে কোন্ বিষয়টিকে আন্তর্জাতিক অপরাধ বলা হয়েছে?

জেনেভা প্রোটোকলে আক্রমণাত্মক যুদ্ধকে ‘আন্তর্জাতিক অপরাধ’ বলা হয়েছে।

বিজয়ী ও বিজিত শক্তিবর্গের মধ্যে প্রথম কোথায় মিত্রতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়?

বিজয়ী ও বিজিত শক্তিবর্গের মধ্যে প্রথম সুইজারল্যান্ডের লোকার্নো শহরে মিত্রতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

কত খ্রিস্টাব্দে লোকার্নো চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়?

১৯২৫ খ্রিস্টাব্দে লোকার্নো চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

লোকার্নো চুক্তি কোন্ কোন্ দেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়?

লোকার্নো চুক্তি ফ্রান্স ও জার্মানির মধ্যে স্বাক্ষরিত হয়।

কত খ্রিস্টাব্দে জার্মানি জাতিসংঘে যোগদান করে?

১৯২৬ খ্রিস্টাব্দে জার্মানি জাতিসংঘে যোগদান করে।

কত খ্রিস্টাব্দে কেলগ-ব্রিয়াঁ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়?

১৯২৮ খ্রিস্টাব্দে কেলগ-ব্রিয়াঁ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

কতগুলি দেশ কেলগ-ব্রিয়াঁ চুক্তি স্বাক্ষর করে?

৬২ টি দেশ কেলগ-ব্রিয়াঁ চুক্তি স্বাক্ষর করে।

কেলগ-ব্রিয়া চুক্তি অপর কী নামে পরিচিত?

কেলগ-ব্রিয়া চুক্তি ১৯২৮ খ্রিস্টাব্দের প্যারিসের চুক্তি নামেও পরিচিত।

কত খ্রিস্টাব্দে জাপান মাঞ্চুরিয়া দখল করে?

১৯৩১ খ্রিস্টাব্দে জাপান মাঞ্চুরিয়া দখল করে।

জাপান ও ইটালি কবে জাতিসংঘের সদস্যপদ ত্যাগ করে?

জাপান ১৯৩১ খ্রিস্টাব্দে এবং ইটালি ১৯৩৫ খ্রিস্টাব্দে জাতিসংঘের সদস্যপদ ত্যাগ করে।

জাতিসংঘের অবসানের সূত্রপাত হয় কখন?

১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দের ১ সেপ্টেম্বর হিটলারের পোল্যান্ড আক্রমণের মধ্য দিয়ে জাতিসংঘের অবসানের সূত্রপাত হয়।

আনুষ্ঠানিকভাবে জাতিসংঘের অবসান কবে হয়?

১৯৪৬ খ্রিস্টাব্দে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতিসংঘের অবসান হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পূর্ব পর্যন্ত কতগুলি আন্তর্জাতিক নিরস্ত্রীকরণ সম্মেলন আহূত হয়?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পূর্ব পর্যন্ত ৩টি আন্তর্জাতিক নিরস্ত্রীকরণ সম্মেলন আহূত হয়।

জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার কত বছরের মধ্যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ সংঘটিত হয়?

জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার ২০ বছরের মধ্যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ সংঘটিত হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য যে আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছিল তার নাম কী?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য যে আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানটি গড়ে উঠেছিল, তার নাম হল সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ বা UNO।

UNO – এর পুরো নাম কী?

UNO – এর পুরো নাম হল United Nations Organisation

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ কোন্ আন্তর্জাতিক সংগঠনের উত্তরসূরি?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ জাতিসংঘ – এর উত্তরসূরি।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ কবে প্রতিষ্ঠিত হয়?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ২৪ অক্টোবর প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রতিষ্ঠাকালে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সদস্যসংখ্যা কত ছিল?

প্রতিষ্ঠাকালে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সদস্যসংখ্যা ছিল ৫১

কোন্ দিনটিকে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রতিষ্ঠা দিবস হিসেবে পালন করা হয়?

২৪ অক্টোবর দিনটিকে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রতিষ্ঠা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে প্রধান ভূমিকা কে পালন করেছিলেন?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে প্রধান ভূমিকা পালন করেছিলেন ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট।

রুজভেল্ট কে ছিলেন?

রুজভেল্ট ছিলেন আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি।

ইউনাইটেড নেশনস শব্দটি কে চয়ন করেন?

ইউনাইটেড নেশনস’ শব্দটি চয়ন করেন রুজভেল্ট।

কত খ্রিস্টাব্দে লন্ডন ঘোষণাপত্র গৃহীত হয়?

১৯৪১ খ্রিস্টাব্দে ‘লন্ডন ঘোষণাপত্র’ গৃহীত হয়।

কোন্ ঘটনাকে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ প্রতিষ্ঠার প্রথম পদক্ষেপ বলা হয়?

আটল্যান্টিক সনদ (১৯৪১, আগস্ট) ঘোষণার ঘটনাকে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ প্রতিষ্ঠার প্রথম পদক্ষেপ বলা হয়।

আটল্যান্টিক সনদ কবে ঘোষিত হয়?

আটল্যান্টিক সনদ ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দের ১৪ আগস্ট ঘোষিত হয়।

আটল্যান্টিক সনদ কারা ঘোষণা করেন?

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি রুজভেল্ট এবং ইংল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী চার্চিল আটল্যান্টিক সনদ ঘোষণা করেন।

আটল্যান্টিক সনদ কোথায় স্বাক্ষরিত হয়?

আটল্যান্টিক সনদ আটল্যান্টিক মহাসাগরের উপর প্রিন্স অফ ওয়েলস নামক যুদ্ধজাহাজে স্বাক্ষরিত হয়।

ওয়াশিংটন সম্মেলন কবে আহূত হয়?

ওয়াশিংটন সম্মেলন ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দে আহূত হয়।

ওয়াশিংটন সম্মেলনে ক-টি দেশের প্রতিনিধিবর্গ যোগ দেয়?

ওয়াশিংটন সম্মেলনে ২৬টি দেশের প্রতিনিধিবর্গ যোগ দেয়।

মস্কো ঘোষণাপত্র কবে প্রকাশিত হয়?

মস্কো ঘোষণাপত্র ১৯৪৩ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত হয়।

কত খ্রিস্টাব্দে তেহরান সম্মেলন হয়?

১৯৪৩ খ্রিস্টাব্দে তেহরান সম্মেলন হয়।

তেহরান সম্মেলনে কোন্ কোন্ গুরুত্বপূর্ণ নেতৃবৃন্দ যোগদান করেন?

তেহরান সম্মেলনে জোসেফ স্ট্যালিন (রাশিয়া), চার্চিল (ইংল্যান্ড) এবং রুজভেল্ট (আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র) যোগদান করেন।

কত খ্রিস্টাব্দে ডাম্বারটন ওক্স্ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়?

১৯৪৪ খ্রিস্টাব্দে ডাম্বারটন ওস্ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

ইয়াল্টা সম্মেলন কত খ্রিস্টাব্দে আহূত হয়?

ইয়াল্টা সম্মেলন ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দে আহূত হয়।

ইয়াল্টা সম্মেলনে কারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেন?

ইয়াল্টা সম্মেলনে স্ট্যালিন, চার্চিল ও রুজভেল্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেন।

সানফ্রান্সিসকো সম্মেলন কবে অনুষ্ঠিত হয়?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ২৫ এপ্রিল থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত সময়ে সানফ্রান্সিসকো সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

কোন্ সম্মেলনে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের উদ্দেশ্য, নীতি ও গণতন্ত্র নিয়ে আলোচনা করা হয়?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের সানফ্রান্সিসকো সম্মেলনে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের উদ্দেশ্য, নীতি ও গণতন্ত্র নিয়ে আলোচনা করা হয়।

কোন্ সম্মেলনে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ গৃহীত হয়?

সানফ্রান্সিসকো সম্মেলনে (১৯৪৫ খ্রি.) সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ গৃহীত হয়।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সংবিধানটি কী নামে পরিচিত?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সংবিধানটি সনদ (Charter) নামে পরিচিত।

কবে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ স্বাক্ষরিত হয়?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ২৬ জুন সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ স্বাক্ষরিত হয়।

জাতিপুঞ্জের মূল আধার কাকে বলা হয়?

জাতিপুঞ্জের মূল আধার বলা হয় জাতিপুঞ্জের সনদকে।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে আদি স্বাক্ষরকারী সদস্য কতজন ছিলেন?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে আদি স্বাক্ষরকারী সদস্য ছিলেন ৫০ জন (পরে পোল্যান্ড এতে স্বাক্ষর করলে ৫১ জন হয়)।

সনদ সদস্য (Charter Member) কাদের বলা হয়?

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে যে ৫১টি দেশ প্রথম স্বাক্ষর করেছিল, তাদের ‘সনদ সদস্য’ বলা হয়।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ কবে থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকরী হয়?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ২৪ অক্টোবর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকরী হয়।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে কয়টি অধ্যায় আছে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে ১৯টি অধ্যায় আছে।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে কয়টি ধারা আছে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদে ১১১টি ধারা আছে।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ সংশোধনের ক্ষেত্রে কোন্ সংস্থা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদ সংশোধনের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা পরিষদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কোন রাষ্ট্রের সংবিধানের অনুকরণে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সংবিধানের প্রস্তাবনা রচিত হয়েছিল?

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের অনুকরণে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সংবিধানের প্রস্তাবনা রচিত হয়েছিল।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ কয়টি প্রধান সংস্থা নিয়ে গঠিত?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ ৬টি প্রধান সংস্থা নিয়ে গঠিত।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদের কত নং ধারায় ৬টি সংস্থার কথা বলা হয়েছে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদের ৭নং ধারায় ৬টি সংস্থার কথা বলা হয়েছে।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রধান সংস্থাগুলির মধ্যে সর্বাপেক্ষা বেশি প্রতিনিধিত্বমূলক সংস্থা কোন্টি?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রধান সংস্থাগুলির মধ্যে সর্বাপেক্ষা বেশি প্রতিনিধিত্বমূলক সংস্থা হল সাধারণ সভা।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের কোন্ সংস্থাকে বিশ্ব নাগরিক সভা বলা হয়?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সাধারণ সভাকে বিশ্ব নাগরিক সভা বলা হয়।

জাতিপুঞ্জের কোন্ সভাকে সমগ্র বিশ্বের একটি সংক্ষিপ্ত রূপ বলা হয়?

জাতিপুঞ্জের সাধারণ সভাকে সমগ্র বিশ্বের একটি সংক্ষিপ্ত রূপ বলা হয়।

কবে সাধারণ সভার বার্ষিক অধিবেশন শুরু হয়?

প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের তৃতীয় মঙ্গলবার সাধারণ সভার বার্ষিক অধিবেশন শুরু হয়।

সাধারণ সভার অধিবেশনে কতজন সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন?

সাধারণ সভার অধিবেশনে ২১ জন সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন।

বর্তমানে সাধারণ সভার সদস্যসংখ্যা কত?

উত্তর বর্তমানে সাধারণ সভার সদস্যসংখ্যা হল ১৯৩ জন (২০১৬ পর্যন্ত)।

সাধারণ সভায় প্রত্যেক সদস্য রাষ্ট্র ক-টি ভোট দিতে পারে?

সাধারণ সভায় প্রত্যেক সদস্য রাষ্ট্র ১টি ভোট দিতে পারে।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদের কত নম্বর ধারায় সাধারণ সভার ভোটদান পদ্ধতির কথা আলোচিত হয়েছে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সনদের ১৮নং ধারায় সাধারণ সভার ভোটদান পদ্ধতির কথা আলোচিত হয়েছে।

কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে সাধারণ সভার কতজনের সমর্থন প্রয়োজন?

কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে সাধারণ সভায় উপস্থিত এবং ভোটপ্রদানকারী সদস্যদের দুই- তৃতীয়াংশের সমর্থন প্রয়োজন।

সাধারণ সভার সর্বশেষ যোগদানকারী রাষ্ট্রের নাম কী?

সাধারণ সভার সর্বশেষ যোগদানকারী রাষ্ট্রের নাম হল দক্ষিণ সুদান (২০১১ খ্রি.)।

কোন্ সংস্থাকে জাতিপুঞ্জের হৃৎপিণ্ড বলা হয়?

নিরাপত্তা পরিষদকে জাতিপুঞ্জের ‘হৃৎপিণ্ড’ বলা হয়।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের চালিকাশক্তি কাকে বলা হয়?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের চালিকাশক্তি’ বলা হয় নিরাপত্তা পরিষদকে।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ প্রথমে কত সদস্য রাষ্ট্র নিয়ে গঠিত হয়েছিল?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ প্রথমে ১১টি (৫টি স্থায়ী ও ৬টি অস্থায়ী) সদস্য রাষ্ট্র নিয়ে গঠিত হয়েছিল।

কত খ্রিস্টাব্দে নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যসংখ্যা বৃদ্ধি করে ১০ করা হয়?

১৯৬৫ খ্রিস্টাব্দে ২৩(ক) ধারা অনুযায়ী নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যসংখ্যা ৬ থেকে বৃদ্ধি করে ১০ করা হয়।

বর্তমানে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যসংখ্যা কত?

বর্তমানে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যসংখ্যা হল ১৫

নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যসংখ্যা কত?

নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যসংখ্যা হল ৫

নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র কারা?

নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্রসমূহ হল – আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, চিন (১৯৭১ খ্রি. থেকে) এবং রাশিয়া (১৯৯২ খ্রি. থেকে)।

নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যগণ কত বছরের জন্য নির্বাচিত হয়?
অথবা, নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যদের কার্যকালের মেয়াদ কত বছর?

নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যগণ ২ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জে কারা ভেটো ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জে নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচজন স্থায়ী সদস্য ‘ভেটো’ ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারে।

ভেটো কী?

যে বিশেষ অধিকারবলে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের যে-কোনো স্থায়ী সদস্য কোনো প্রস্তাবকে নাকচ করে দিতে পারে, তাকে ভেটো বলে।

ভেটো শব্দের অর্থ কী?

ভেটো শব্দের অর্থ হল নিষেধাজ্ঞা।

কত জন সদস্য নিয়ে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদ গঠিত হয়েছিল?

১৮ জন সদস্য নিয়ে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদ গঠিত হয়েছিল।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের সদস্যরা কত বছরের জন্য নির্বাচিত হন?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের সদস্যরা ৩ বছরের জন্য নির্বাচিত হন।

অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের সদস্যগণ কীভাবে নির্বাচিত হন?

অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের সদস্যগণ সাধারণ সভা কর্তৃক নির্বাচিত হন।

বর্তমানে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের সদস্যসংখ্যা কত?

বর্তমানে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের সদস্যসংখ্যা হল ৫৪

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদে প্রতি ৩ বছর অন্তর কতজন সদস্যকে পদত্যাগ করতে হয়?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদে প্রতি ৩ বছর অন্তর ১৮ জন (এক-তৃতীয়াংশ) সদস্যকে পদত্যাগ করতে হয়।

FAO – এর পুরো নাম কী?

FAO – এর পুরো নাম হল Food and Agricultural Organisation

IMF – এর পুরো নাম কী?

IMF – এর পুরো নাম হল International Monetary Fund

ILO – এর পুরো নাম কী?

ILO – এর পুরো নাম হল International Labour Organisation

আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংস্থার (ILO) প্রথম পরিচালক কে ছিলেন?

আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংস্থার (ILO) প্রথম পরিচালক ছিলেন অ্যালবার্ট টমাস।

WHO – এর পুরো নাম কী?

WHO – এর পুরো নাম হল World Health Organisation

UNESCO – এর পুরো নাম কী?

UNESCO – এর পুরো নাম হল United Nations Educational Scientific and Cultural Organisation

UNICEF – এর পুরো নাম কী?

UNICEF – এর পুরো নাম হল United Nations Children’s Emergency Fund

WTO – এর পুরো নাম কী?

WTO – এর পুরো নাম হল World Trade Organisation

UNRRA – এর পুরো নাম কী?

UNRRA – এর পুরো নাম হল United Nations Relief and Rehabilitation Administration

জাতিপুঞ্জের অছি পরিষদের অন্তর্ভুক্ত অধিকাংশ দেশই কোন্ মহাদেশে অবস্থিত?

জাতিপুঞ্জের অছি পরিষদের অন্তর্ভুক্ত অধিকাংশ দেশই আফ্রিকা মহাদেশে অবস্থিত।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অছি পরিষদের অধীনে থাকা সর্বশেষ দেশটির নাম কী?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের অছি পরিষদের অধীনে থাকা সর্বশেষ দেশটির নাম হল পালাউ।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের আন্তর্জাতিক বিচারালয় কোথায় অবস্থিত?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের আন্তর্জাতিক বিচারালয় নেদারল্যান্ডের হেগ শহরে অবস্থিত।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের আন্তর্জাতিক বিচারালয় কত জন বিচারপতি নিয়ে গঠিত?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের আন্তর্জাতিক বিচারালয় ১৫ জন বিচারপতি নিয়ে গঠিত।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের বিচারপতিদের কার্যকালের মেয়াদ কত বছর?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের বিচারপতিদের কার্যকালের মেয়াদ ৯ বছর।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সচিবালয়ের প্রধানকে কী বলে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সচিবালয়ের প্রধানকে বলা হয় মহাসচিব।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা কে?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা হলেন মহাসচিব।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের মহাসচিবের কার্যকালের মেয়াদ কত বছর?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের মহাসচিবের কার্যকালের মেয়াদ ৫ বছর।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রথম মহাসচিব কে ছিলেন?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের প্রথম মহাসচিব ছিলেন ট্রিগভি হাল্ডডান লি।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের বর্তমান মহাসচিবের নাম কী?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের বর্তমান মহাসচিবের নাম হল অ্যান্টোনিও গুটারেস।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সদর দপ্তর কোথায় অবস্থিত?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের সদর দপ্তর আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক শহরে অবস্থিত।

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের বর্তমান সদস্যসংখ্যা কত?

সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের বর্তমান সদস্যসংখ্যা হল ১৯৩ (২০১৬ খ্রি.)।

কোন্ বছর সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছিল?

২০০১ খ্রিস্টাব্দে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জ নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছিল।

জাতিসংঘ হল বিশ্বের শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা। জাতিসংঘের অর্জনগুলি বিশ্ববাসীকে আশাবাদী করে তুললেও এর সামনে যেসব চ্যালেঞ্জ রয়েছে সেগুলি মোকাবেলা করার জন্য জাতিসংঘের সদস্য দেশগুলিকে একসাথে কাজ করতে হবে।

Rate this post


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন