Madhyamik Physical Science Question Paper 2019 With Answer

আমরা এই আর্টিকেলে মাধ্যমিক পরীক্ষার পুরাতন বছরের প্রশ্ন এবং তাদের উত্তর নিয়ে আলোচনা করব। এই আর্টিকেলের সাহায্যে শিক্ষার্থীরা মাধ্যমিক পরীক্ষায় পূর্বের বছরের কোন প্রশ্ন ছিল তা সম্পর্কে একটি স্পষ্ট ধারণা পাবেন। এই আর্টিকেলে, আমরা ‘Madhyamik Physical Science Question Paper 2019 With Answer‘ নিয়ে আলোচনা করবো। মাধ্যমিক ২০১৯ এর প্রশ্নগুলি শিক্ষার্থীদের পরবর্তী বছরের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আশা করি, তুমি মাধ্যমিক ভৌতবিজ্ঞান পরীক্ষা দেওয়ার আগে ‘Madhyamik Physical Science Question Paper 2019 With Answer‘ দেখে পরীক্ষা দিবে।

Table of Contents

Madhyamik Physical Science Question Paper 2019 With Answer

ক-বিভাগ

1. বহু বিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে উত্তর হিসেবে চারটি করে বিকল্প দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখো :

1.1 নীচের কোন্ গ্যাসটি ভূপৃষ্ঠ থেকে বিকিরিত দীর্ঘ তরঙ্গদৈর্ঘ্য বিশিষ্ট অবলোহিত রশ্মি শোষণ করে?

(a) N2

(b) O2

(c) CH4

(d) He

উত্তর: (c) CH4

1.2 STP তে 2.24 L অধিকার করে

(a) 4.4 g CO2

(b) 0.64 g SO2

(c) 28 g Co

(d) 16 g O2 (C = 12, O = 16, S = 32)

উত্তর: (a) 4.4 g CO2

1.3 1 মোল C, 1 মোল O2-র সঙ্গে সম্পূর্ণভাবে বিক্রিয়া করলে CO2-এর কতগুলি অণু উৎপন্ন হবে?

(a) 6.022 × 1023

(b) 1.806 × 1024

(c) 6.022 × 1022

(d) 6.022 × 1024

উত্তর: (a) 6.022 × 1023

1.4 কঠিনের কত প্রকার তাপীয় প্রসারণ গুণাঙ্ক আছে?

(a) এক

(b) দুই

(c) তিন

(d) চার

উত্তর: (c) তিন

1.5 নীচের কোনটির তরঙ্গদৈর্ঘ্য সবচেয়ে বেশি?

(a) x-রশ্মি

(b) γ-রশ্মি

(c) অবলোহিত রশ্মি

(d) অতিবেগুনি রশ্মি

উত্তর: (c) অবলোহিত রশ্মি

1.6 প্রতিসরণের ক্ষেত্রে আপতন কোণ ও প্রতিসরণ কোণ যথাক্রমে 45° ও 30° হলে কৌণিক চ্যুতির মান হবে –

(a) 75°

(b) 15°

(c) 7.5°

(d) 36.5°

উত্তর: (b) 15°

1.7 অপরিবর্তিত উষ্ণতায় কোনো পরিবাহীর দুই প্রান্তের বিভদপ্রভেদ V এবং পরিবাহীর মধ্য দিয়ে তড়িৎপ্রবাহমাত্রা 1 হলে নীচের কোনটি সত্য?

(a) V ∝ I

(b) V ∝ I2

(c) V ∝ I-1

(d) V ∝ I-2

উত্তর: (a) V ∝ I

1.8 তড়িৎচালক. বল (V), কার্য (W) ও আধান (Q) এর মধ্যে সম্পর্কটি হল

a) Q = WV

(b) Q = \(\frac VW\)

(c) Q = \(\frac V{W^2}\)

(d) Q = \(\frac WV\)

উত্তর: (d) Q = \(\frac WV\)

1.9 তেজস্ক্রিয় পরমাণু থেকে β-কণা নিঃসরণের ফলে উৎপন্ন পরমাণুর

(a) ভরসংখ্যা বাড়ে

(b) পারমাণবিক সংখ্যা বাড়ে

(c) ভরসংখ্যা কমে

(d) পারমাণবিক সংখ্যা কমে

উত্তর: (b) পারমাণবিক সংখ্যা বাড়ে

1.10 দীর্ঘ পর্যায় সারণির কোন্ শ্রেণিতে হ্যালোজেন মৌলগুলি অবস্থিত?

(a) শ্রেণি 1

(b) শ্রেণি 16

(c) শ্রেণি 17

(d) শ্রেণি 2

উত্তর: (c) শ্রেণি 17

1.11 নীচের কোন্ যৌগটির কঠিন অবস্থা আয়ন দ্বারা গঠিত?

(a) সোডিয়াম ক্লোরাইড

(b) হাইড্রোজেন ক্লোরাইড

(c) ন্যাপথালিন

(d) গ্লুকোজ

উত্তর: (a) সোডিয়াম ক্লোরাইড

1.12 নীচের কোল্টির তড়িৎ পরিবহন ক্ষমতা সর্বাধিক?

(a) বিশুদ্ধ জলের

(b) চিনির জলীয় দ্রবণের

(c) তরল হাইড্রোজেন ক্লোরাইডের

(d) অ্যাসিটিক অ্যাসিডের জলীয় দ্রবণের

উত্তর: (d) অ্যাসিটিক অ্যাসিডের জলীয় দ্রবণের

1.13 নাইট্রোজেন বন্ধনের প্রথম ধাপে বিদ্যুৎপাতের ফলে নীচের কোন্ যৌগটি উৎপন্ন হয়?

(a) NO

(b) NO2

(c) N2O5

(d) HNO3

উত্তর: (a) NO

1.14 নীচের কোনটির অ্যালুমিনিয়ামের আকরিক বক্সাইটের সংকেত?

(a) Al2O3

(b) Al2O3.H2O

(c) AL2O3.2H2O

(d) AIF3.3NaF

উত্তর: (c) AL2O3.2H2O

1.15 নীচের কোনটি দুটি কার্বন পরমাণুযুক্ত অ্যালকিল গ্রুপ?

( a) মিথাইল

(b) ইথাইল

(c) প্রোপাইল

(d) আইসোপ্রোপাইল

উত্তর: (b) ইথাইল

খ-বিভাগ

2. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাও (বিকল্প প্রশ্নগুলি লক্ষ্যণীয়) :

2.1 জ্বালানীর তাপনমূল্যের একক লেখো।

উত্তর: জ্বালানির তাপনমুল্যের একক হল কিলোজুল/গ্রাম (kJ/g)।

অথবা

স্ট্রাটোস্ফিয়ারে উচ্চতা বৃদ্ধির সঙ্গে উষ্ণতা বাড়ে না কমে?

উত্তর: স্ট্রাটোস্ফিয়ারে উচ্চতা বৃদ্ধির সঙ্গে উষ্ণতা বাড়ে।

2.2 ওজোন স্তর সূর্য থেকে আগত কোন্ রশ্মির ভূপৃষ্ঠে আপতনকে প্রতিহত করে?

উত্তর: ওজোন স্তর সূর্য থেকে আগত অতিবেগুনী রশ্মির ভূপৃষ্ঠে আপতনকে প্রতিহত করে।

2.3 নীচের বিবৃতিটি সত্য না মিথ্যা লেখো :

অ্যাভোগ্যাড্রো সূত্রে গ্যাসের অণুগুলির আয়তন গণ্য করা হয়।

উত্তর: মিথ্যা।

2.4 STP-তে কত গ্রাম N2 গ্যাসের আয়তন ও চাপের গুণফল 224 লিটার অ্যাটমস্ফিয়ার? [N = 14]

উত্তর: 280 g

2.5 নীচের বিবৃতিটি সত্য না মিথ্যা লেখো :

কোনো বস্তুর মধ্য দিয়ে তাপ পরিবহনের সময় বস্তুর উপাদান কণাগুলির স্থান পরিবর্তন হয়।

উত্তর: মিথ্যা।

অথবা

কোনো পরিবাহীর বেধ এবং প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল অপরিবর্তিত থাকলে ওই পরিবাহীর তাপীয় রোধ এবং তাপপরিবাহিতার মধ্যে সম্পর্ক কী?

উত্তর: কোন পরিবাহীর বেধ এবং প্রস্থচ্ছেদের ক্ষেত্রফল অপরিবর্তিত থাকলে ওই পরিবাহীর তাপীয় রোধ এবং তাপ পরিবাহিতার মধ্যে সম্পর্ক –

তাপীয় রোধ1তাপ পরিবাহিতা

2.6 একটি আলোকরশ্মি অবতল দর্পণের বক্রতাকেন্দ্র দিয়ে গেলে আপতন কোণ কত হবে?

উত্তর: একটি আলোক রশ্মি অবতল দর্পণের বক্রতাকেন্দ্র দিয়ে গেলে আপতন কোন হবে – 0°

2.7 একটি প্রিজমের কয়টি আয়তাকার তল আছে?

উত্তর: একটি প্রিজমের তিনটি আয়তকার তল আছে।

2.8 একটি অর্ধপরিবাহীর উদাহরণ দাও।

উত্তর: একটি অর্ধ পরিবাহীর উদাহরণ হল জার্মেনিয়াম।

2.9 একটি পরিবাহী পদার্থের একটি সরু ও একটি মোটা তারের দৈর্ঘ্য সমান। একই বিভব প্রভেদে রাখলে তাদের কোনটির মধ্য দিয়ে তড়িৎপ্রবাহ বেশি হবে?

উত্তর: একই বিভব প্রভেদে রাখলে মোটা তারের মধ্য দিয়ে তড়িৎ প্রবাহ বেশি হবে।

2.10 নিউক্লিয় বিভাজন বিক্রিয়ার একটি অপব্যবহারের উল্লেখ করো।

উত্তর: নিউক্লিয় বিভাজন বিক্রিয়ার একটি অপব্যবহার হল – নিউক্লিয় বিভাজন বিক্রিয়ার প্রক্রিয়াকে কাজে লাগিয়ে পরমাণু বোমা তৈরি করা হয়।

অথবা

নিউক্লিয় সংযোজনে যে বিপুল পরিমাণ শক্তি মুক্ত হয় কোন্ সূত্র তা ব্যাখ্যা করে?

উত্তর: নিউক্লিয় সংযোজনে যে বিপুল পরিমাণ শক্তি মুক্ত হয় যে সূত্র তা হল – E = mc²

আইনস্টাইনের আপেক্ষিকতা তত্ত্ব অনুযায়ী – যেখানে E = উৎপন্ন শক্তি, m = বস্তুর ভর, c = শূন্য মাধ্যমে আলোর গতিবেগ।

2.11 বামস্তম্ভের সঙ্গে ডানস্তম্ভের সামঞ্জস্য বিধান করো :

বাম স্তম্ভডান স্তম্ভ
2.11.1 অক্সাইডের আস্তরণ দ্বারা জলীয় বাষ্পের আক্রমণ থেকে সুরক্ষিত থাকে(a) Cu
2.11.2 দীর্ঘ পর্যায় সারণির শ্রেণি 1 এর সর্বাপেক্ষা কম বিজারণ গুণসম্পন্ন ধাতু(b) Be
2.11.3 ধাতুটি খোলা বায়ুতে থাকলে ধাতুটির ওপরে ধীরে ধীরে ছোপ ধরে(c) Al
2.11.4 দীর্ঘ পর্যায় সারণির শ্রেণি 2 এর সর্বাপেক্ষা কম পারমাণবিক ব্যাসার্ধযুক্ত মৌল(d) Li

উত্তর:

বাম স্তম্ভডান স্তম্ভ
2.11.1 অক্সাইডের আস্তরণ দ্বারা জলীয় বাষ্পের আক্রমণ থেকে সুরক্ষিত থাকে(c) Al
2.11.2 দীর্ঘ পর্যায় সারণির শ্রেণি 1 এর সর্বাপেক্ষা কম বিজারণ গুণসম্পন্ন ধাতু(d) Li
2.11.3 ধাতুটি খোলা বায়ুতে থাকলে ধাতুটির ওপরে ধীরে ধীরে ছোপ ধরে(a) Cu
2.11.4 দীর্ঘ পর্যায় সারণির শ্রেণি 2 এর সর্বাপেক্ষা কম পারমাণবিক ব্যাসার্ধযুক্ত মৌল(b) Be

2.12 N2 অণুর লুইস ডট চিত্র অঙ্কন করো। (N এর পারমাণবিক সংখ্যা 7)

উত্তর:

N2 অণুর লুইস ডট চিত্র অঙ্কন করো।

2.13 তড়িৎবিশ্লষণে কোন্ প্রকারের তড়িৎপ্রবাহ ব্যবহার করা হয়?

উত্তর: তড়িৎ বিশ্লেষণে DC তড়িৎ প্রবাহ ব্যবহার করা হয়।

অথবা

প্ল্যাটিনাম ইলেকট্রোড ব্যবহার করে অম্লায়িত জলের তড়িৎবিশ্লেষণে ক্যাথোড বিক্রিয়াটি লেখো।

উত্তর: প্ল্যাটিনাম ইলেকট্রোড ব্যবহার করে অম্লায়িত জলের তড়িৎবিশ্লেষণে ক্যাথোড বিক্রিয়াটি হল –

2H+ + 2e → H2

2.14 পিতলের ওপর সোনার তড়িৎলেপন করতে তড়িৎবিশ্লেষ্য হিসেবে কী ব্যবহৃত হয়?

উত্তর: পিতলের ওপর সোনার তড়িৎ লেপন করতে তড়িৎ বিশ্লেষ্য হিসাবে ব্যবহৃত হয় – পটাশিয়াম অরোসায়ানাইড (K[Au(CN)2])

2.15 নেসলার বিকারকের সঙ্গে অ্যামোনিয়ার বিক্রিয়ায় কী রঙ উৎপন্ন হয়?

উত্তর: নেসলার বিকারকের সঙ্গে অ্যামোনিয়ার বিক্রিয়ায় তামাটে রঙ – এর অধঃক্ষেপ উৎপন্ন হয়।

2.16 সিলভার নাইট্রেটের জলীয় দ্রবণে H2S গ্যাস চালনা করলে যে অধঃক্ষেপ পড়ে তার সংকেত লেখো।

উত্তর: সিলভার নাইট্রেটের জলীয় দ্রবণে H2S গ্যাস চালনা করলে যে অধঃক্ষেপ পড়ে তার সংকেত Ag2S

অথবা

উচ্চ উষ্ণতায় ম্যাগনেশিয়াম ধাতুর সঙ্গে নাইট্রোজেন এর বিক্রিয়ায় যে যৌগ উৎপন্ন হয় তার নাম লেখো।

উত্তর: উচ্চ উষ্ণতায় ম্যাগনেসিয়াম ধাতুর সঙ্গে নাইট্রোজেনের বিক্রিয়ায় যে যৌগ উৎপন্ন হয় তার নাম হল – ম্যাগনেসিয়াম নাইট্রাইড (Mg3N2)।

2.17 মিথেন অণুতে H-C-H বন্ধন কোণের মান কত?

উত্তর: মিথেন অনুতে H-C-H বন্ধন কোণের মান হল – 109°28′ 

অথবা

CH2CH2COOH এর IUPAC নাম লেখো।

উত্তর: CH3CH2COOH এর IUPAC নাম হল – প্রোপানোয়িক অ্যাসিড।

2.18 CNG-র শিল্প উৎস কী?

উত্তর: CNG এর শিল্প উৎস হল –

  • প্রাকৃতিক গ্যাস
  • পেট্রোলিয়াম খনি
  • কয়লা খনি।

বিভাগ-গ

3.1 নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাও (বিকল্প প্রশ্নগুলি লক্ষণীয়)

3.1 স্থিতিশীল উন্নয়নের ধারণাটি কী?

উত্তর: স্থিতিশীল উন্নয়ন – বর্তমানের চাহিদা পূরণ করা এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের চাহিদা পূরণে সহায়ক হতে না এবং আপেক্ষিক বৃদ্ধি করতে উন্নতি করা।

3.2 কোন গ্যাসের 1 গ্রাম 7°C উষ্ণতায় ও 2 অ্যাটমস্ফিয়ার চাপে 410 mL আয়তন অধিকার করে। গ্যাসটির মোলার ভর নির্ণয় করো। (R = 0.082 লিটার অ্যামটস্ফিয়ার মোল-1 K-1)

উত্তর: আমরা জানি, আদর্শ গ্যাসের ক্ষেত্রে,

\(PV=\frac mMRT\\\)

এখানে, গ্যাসের চাপ (P) = 2 অ্যাটমোস্ফিয়ার (atm)

গ্যাসের আয়তন (V) = \(\frac{410}{1000}L\)

গ্যাসের ভর (m) = 1g

মোলার ভর (R) = 0.082 L. atm. Mole-1 K-1

গ্যাসের পরম তাপমাত্রা (T) = (7 + 273)K = 280K

মোলার ভর (M) = ?

যেহেতু, \(PV=\frac mMRT\)

বা, 2 × \(\frac{410}{1000}=\frac1M\) × 0.082 × 280

বা, M = \(\frac{0.082\times1000\times280}{2\times410}\)

∴ মোলার ভর = 28g।

অথবা

STP-তে নির্দিষ্ট ভরের একটি গ্যাস 273cm³ আয়তন অধিকার করে। কত চাপে 27°C উষ্ণতায় ওই গ্যাসটি 300 cm³ আয়তন অধিকার করবে?

উত্তর: STP-তে চাপ = 1 অ্যাটমোস্ফিয়ার (atm.)

তাপমাত্রা = 0°C = 273K

এখন, নির্দিস্ট ভরের গ্যাসের ক্ষেত্রে,

\(\frac{P_1V_1}{T_1}=\frac{P_2V_2}{T2}\\\)

এখানে, প্রাথমিক চাপ (P1) = atm
প্রাথমিক আয়তন (V1) = 273cm³
প্রাথমিক তাপমাত্রা (T1) = 273K
অন্তিম আয়তন (V2) = 300cm³
অন্তিম তাপমাত্রা (T2) = 27°C = (273 + 27)K = 300K
অন্তিম চাপ (P2) = ?

বা, \(\frac{1\times273}{273}=\frac{P_2\times300}{300}\)

∴ P2 = 1

∴ অন্তিম চাপ 1 atm

3.3 কোনো মাধ্যমের প্রতিসরাঙ্ক কাকে বলে?

উত্তর: যদি একটি নির্দিষ্ট বর্ণের আলোর প্রতিসরণ দুটি নির্দিষ্ট মাধ্যমের বিভেদে হলে, এর ফলে আপাতন কোণের সাইন ও প্রতিসরণ কোণের সাইনের অনুপাতকে প্রথম মাধ্যমের সাপেক্ষে দ্বিতীয় মাধ্যমের প্রতিসরাঙ্ক বলে।

অথবা

উত্তল লেন্স দ্বারা কোন্ ধরনের দৃষ্টিত্রুটি প্রতিকার করা হয়?

উত্তর: উত্তল লেন্স দ্বারা দীর্ঘদৃষ্টি বা হাইপারমেট্রোপিয়া ত্রুটি সংশোধন করা যায়। চোখ যখন দূরের জিনিস স্পষ্টভাবে দেখতে পারে কিন্তু কাছের জিনিস স্পষ্টভাবে দেখতে পারে না, তখন এই রকম ত্রুটিকে হাইপারমেট্রোপিয়া বলে। কোন ব্যক্তির চোখে নিকটবর্তী বিন্দু দূরে সরে যাওয়া হলে এই ত্রুটি সন্ধান করা যায়।

3.4 r1 এবং r2 দুটি রোধকে একই বিভব প্রভেদে আলাদা ভাবে যুক্ত করে দেখা গেল r1 এর মধ্যে দিয়ে প্রবাহমাত্রা r2-এর মধ্যে দিয়ে প্রবাহমাত্রার ছয়গুণ। r1 ও r2-র অনুপাত নির্ণয় করো।

উত্তর: ধরি, r1 ও r2 দুটি রোধকে একই বিভব প্রভেদ V এর সঙ্গে যুক্ত করা হল এবং r2 রোধের মধ্যে দিয়ে প্রবাহ মাত্রা।

∴ r1 এর মধ্যে দিয়ে প্রবাহমাত্রা 6I।

∴ V = 6Ir1______(i)

এবং V = Ir2______(ii)

∴ 6Ir1 = Ir2

বা, 6r1 = r2

বা, \(\frac{r_1}{r_2}=\frac16\)

∴ রোধ দুটির অনুপাত 1 : 6।

3.5 কোশেল আয়নীয় বন্ধন গঠন কীভাবে ব্যাখ্যা করেন?

উত্তর: ধাতু এবং অধাতুর মৌলদের মধ্যে সংস্পর্শের সময় কোশেলের মতো একটি অদ্ভুত ঘটনা ঘটে। ধাতু মৌল থেকে অধাতুর মৌলে ইলেকট্রন স্থানান্তরিত হয়, যেটি নিষ্ক্রিয় মৌলের ইলেকট্রন পরিমাণের পরিবর্তনের ফলে ঘটে। ধাতু মৌল ইলেকট্রন হারাতে পারে এবং অধাতু মৌল ইলেকট্রন গ্রহণ করে পারে, যা একে ক্যাটায়ন এবং অন্যটি অ্যানায়ন করে। এই অদ্ভুত প্রক্রিয়া আয়নীয় বন্ধন নামে পরিচিত। ধাতুর পরমাণুর ক্ষেত্রে, ইলেকট্রনের সংখ্যা বা কমে বা বেশি হলে এই প্রক্রিয়া সহজেই ঘটে।

অথবা

তরল হাইড্রোজেন ক্লোরাইড তড়িৎ পরিবহনে সক্ষম নয়, কিন্তু গলিত সোডিয়াম ক্লোরাইড তড়িৎ পরিবহনে সক্ষম। ব্যাখ্যা করো।

উত্তর: সোডিয়াম ক্লোরাইড (NaCl) – এই চমৎকার আয়নীয় যৌগের প্রতিষ্ঠাতা কেলাসের পরিণতির ফলে, জলীয় মাধ্যমে এর Na+ ও CI আয়নগুলি স্বাধীন হয়ে উঠে। এই অবশেষে এই চমৎকার আয়নগুলি তড়িৎ পরিবহনের অধিকারী হয়ে দাবী করে। সোডিয়াম ক্লোরাইডের জলীয় দ্রবণ বদলে আসে একটি তড়িৎ পরিবাহী মাধ্যমে, যা এর পরিবেশানুযায়ী সম্পৃক্ত।

সমাধানের দিকে, তরল হাইড্রোজেন ক্লোরাইড (HCI) একটি অন্যত্রিত যৌগ, যা পরিশুদ্ধ অবস্থা অনুভব করে না। এবং এই বাধা সহজ প্রযুক্তিতে তার তড়িৎ পরিবহনে আটকে রাখে।

3.6 দুটি ভৌত ধর্মের সাহায্যে সোডিয়াম ক্লোরাইড ও ন্যাপথালিনের মধ্যে পার্থক্য করো।

উত্তর:

সোডিয়াম ক্লোরাইডন্যাপথলিন
ধ্রুবীয় দ্রাবকে দ্রবীভূত হয়। যেমন – জল।ন্যাপথলিন অধ্রুবীয় দ্রাবকে দ্রবীভূত হয়। যেমন – অ্যালকোহল।
সোডিয়াম ক্লোরাইডের তরিৎযোজী যৌগ হওয়ায় গলনাঙ্ক ও স্ফুটনাঙ্ক বেশি।ন্যাপথলিনের সমযোজী যৌগ হওয়ায় গলনাঙ্ক ও স্ফুটনাঙ্ক তুলনামুলকভাবে কম।

3.7 দুটি জলীয় দ্রবণের একটি ফেরিক ক্লোরাইড ও অপরটি অ্যালুমিনিয়াম ক্লোরাইড। অ্যামোনিয়ার জলীয় দ্রবণের সাহায্যে কিভাবে ফেরিক ক্লোরাইড দ্রবণটি শনাক্ত করবে? সমিত রাসায়নিক সমীকরণ সহ উত্তর দাও।

উত্তর: অ্যামোনিয়ার জলীয় দ্রবণের সঙ্গে ফেরিক ক্লোরাইডের সমর্থনে, একটি আকর্ষণীয় রঙ প্রকাশ করে ফেরিক হাইড্রক্সাইডের অধঃক্ষেপ উৎপন্ন হয়। যেমনঃ

FeCl3 + 3NH4OH → 3NH4Cl + Fe(OH)3

একইভাবে, অ্যামোনিয়ার জলীয় দ্রবণের সাথে অ্যালুমিনিয়াম ক্লোরাইডের প্রভাবে, সাদা বর্ণের অ্যালুমিনিয়াম হাইড্রক্সাইডের অধঃক্ষেপ উৎপন্ন হয় যেমনঃ

AlCl3 + 3NH4OH → 3NH4Cl + Al(OH)3

3.8 জিঙ্ক ব্লেন্ডকে জিঙ্কের খনিজ ও আকরিক দুই-ই বলা যায় কেন?

উত্তর: জিংক ব্লেন্ডকে দুই ধরণের খনিজ বলা হয়। প্রথমত, এটি ভূপৃষ্ঠে বা ভূগর্ভে শিলারূপে থাকা বিভিন্ন ধাতব যৌগগুলির মিশ্রণ।

সহজে এবং সুলভে ধাতু নিষ্কাশন করা যায় তাকে আকরিক বলে। অর্থাৎ, যে খনিজ থেকে ধাতু সহজে নিক্ষেপ করা যায় এবং তা প্রস্তুত করা সহজ, তারা আকরিক হল।

জিংক ব্লেন্ড খনি থেকে পাওয়া যায়, এটি জিংকের যৌগ ধারণ করে, তাই এটি খনিজ। তাছাড়া, জিংক ব্লেন্ড থেকে জিংক সহজে এবং কম খরচে নিষ্কাশন করা যায়, তাই এটিকে আকরিক ও বলা হয়।

অথবা

লোহার মরিচা পড়া প্রতিরোধের দুটি উপায় উল্লেখ করো।

উত্তর: লোহায় মরচে পড়ার বিরুদ্ধে দুটি উপায় হল –

  • লোহার পড়া রোধ করতে লোহার উপর আলকাতরা, রং অথবা বার্নিশের প্রলেপ করা হয়।
  • মরচে নিবারণের জন্য লোহার উপর জিংক, নিকেল অথবা ক্রোমিয়ামের প্রলেপ দেওয়া হয়।

3.9 মিথেনকে অক্সিজেন দহন করলে কী ঘটে সমিত রাসায়নিক সমীকরণ সহ লেখো।

উত্তর: যখন মিথেন অক্সিজেনের সাথে দহন করে, তখন কার্বন ডাইঅক্সাইড এবং জলীয় বাষ্প উৎপন্ন হয়। এবং এই প্রক্রিয়ায় তাপ শক্তি উপজিত হয়।

CH4 + 2O2 → CO2 + 2H2O

অথবা

অ্যাসিটিক অ্যাসিড ও ইথাইল অ্যালকোহলের একটি করে ব্যবহার উল্লেখ করো।

উত্তর: অ্যাসিটিক অ্যাসিড ব্যবহার করা হয় ভিনিগার তৈরি করতে এবং মাছ, মাংস সংরক্ষণে ব্যবহৃত হয়। এটা একটি প্রসিদ্ধ রাসায়নিক।

ইথাইল অ্যালকোহল ব্যবহার করা হয় শিল্পক্ষেত্রে রং, বার্নিশ, গালা, কৃত্রিম রবার এবং ওষুধ তৈরি করতে। এটি বিশেষভাবে প্রচলিত।

ঘ-বিভাগ

4. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাও (বিকল্প প্রশ্নগুলি লক্ষ্যণীয়) :

4.1 কোনো গ্যাসের মোলার আয়তন বলতে কী বোঝায়? বাস্তব গ্যাসের আদর্শ গ্যাসের আচরণের থেকে বিচ্যুতির দুটি কারণ উল্লেখ করো।

উত্তর: গ্যাসের মোলার আয়তন – নির্দিষ্ট চাপ ও উষ্ণতায় এক মোল যেকোনো গ্যাসের আয়তনকে ওই গ্যাসটির মোলার আয়তন বলে।

বাস্তব গ্যাসের আদর্শ গ্যাসের আচরণ থেকে বিচ্যুতির দুটি কারণ হল –

(i) গ্যাসের গতিতত্ত্ব অনুযায়ী আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির বিন্দু রূপে কল্পনা করা হয়, তাই এই গ্যাসের অনুগুলির আয়তনকে নগণ্য ধরা হয়। কিন্তু বাস্তব গ্যাসগুলি অত্যন্ত ক্ষুদ্র আকৃতির হলেও তাদের একটি নির্দিষ্ট আয়তন আছে, যা পাত্রের আয়তনের থেকে কিছুটা কম। এ কারণে আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির আয়তন পাত্রের আয়তনের সমান হলেও, বাস্তব গ্যাসের আয়তন অনিশ্চিত হতে পারে।

(ii) গ্যাসের গতিতত্ত্ব অনুযায়ী আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির মধ্যে কোন রকমে আকর্ষণ বল কাজ করে না, কিন্তু অন্যদিকে বাস্তব গ্যাসের অনুগুলির মধ্যে আকর্ষণ এবং আকর্ষণ বল কাজ করে। অত্যাধিক চাপের কারণে গ্যাসের অনুগুলির আয়তন সংকোচন হলে অনুগুলি পরস্পরের কাছাকাছি চলে আসে, ফলে তাদের মধ্যে আকর্ষণ বল কাজ করে। তাই আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির যে পরিমাণে পাত্রের দেওয়ালে ধাক্কা দিতে পারে, বাস্তব গ্যাস তা পারে না।

4.2 উচ্চ তাপমাত্রায় Al দ্বারা Fe2O3-কে বিজারিত করে 558 g Fe প্রস্তুতির জন্য কত গ্রাম Al প্রয়োজন? বিক্রিয়াটিতে কত মোল Fe2O5লাগবে? (Fe = 55.8, Al = 27, O = 16)

উত্তর: Fe2O3 -এর আণবিক ভর = (2 × 55.8) + (3 × 16) = 159.6

এক্ষেত্রে রাসায়নিক সমীকরণটি হলো

Fe2O3 + 2Al → Al2O3 + 2Fe

∴ 2 × 55.8 গ্রাম Fe প্রস্তুতির জন্য 54 গ্রাম Al এর প্রয়োজন

1 গ্রাম Fe প্রস্তুতির জন্য \(\frac{54}{2\times55.8}\) গ্রাম Al এর প্রয়োজন

558 গ্রাম Fe প্রস্তুতির জন্য \(\frac{54\times558}{111.6}\) গ্রাম Al এর প্রয়োজন

= 270 গ্রাম Al এর প্রয়োজন

∴ উচ্চ তাপমাত্রায় Al দ্বারা Fe2O3 -কে বিজারিত করে 558g Fe প্রস্তুতির জন্য 270 গ্রাম Al এর প্রয়োজন।

2 × 27 গ্রাম Al, 1 মোেল Fe2O3 এর সঙ্গে বিক্রিয়া করে

∴ 270 গ্রাম Al \(\frac{270}{2\times27}\) মোল Fe₂O₃ এর সঙ্গে বিক্রিয়া করে

= 5 মোল Fe2O3 এর সঙ্গে বিক্রিয়া করে।

অথবা

32.1g অ্যামোমিনিয়াম ক্লোরাইডকে ক্যালশিয়াম হাইড্রক্সাইড সহযোগে উত্তপ্ত করে 10.2g NH3, 33.3g CaCl2 ও 10.8g H2O পাওয়া গেল। কত গ্রাম ক্যালশিয়াম হাইড্রক্সাইড বিক্রিয়াটিতে অংশগ্রহণ করল? এই বিক্রিয়ায় কত মোল NH3 এবং STP-তে কত লিটার NH3 উৎপন্ন হল? (N = 14, H = 1)

উত্তর: NH4Cl + Ca(OH)2 → CaCl2 + NH3 + H2O

ভরের নিত্যতা সূত্র অনুযায়ী,

(অ্যামোনিয়াম ক্লোরাইডের ভর + ক্যালসিয়াম হাইড্রক্সাইডের ভর) = (অ্যামোনিয়ার ভর + ক্যালসিয়াম ক্লোরাইডের ভর + জলের ভর) = (10.2 + 33.3 +10.8)g = 54.3g

∴ ক্যালসিয়াম হাইড্রক্সাইডের ভর – অ্যামোনিয়াম ক্লোরাইডের ভর

= (54.3 – 32.1)g

= 22.2g

NH3 এর আণবিক ভর = {14 + (3 × 1)} = 17

বিক্রিয়াটিতে NH3 এর মোল সংখ্যা = \(\frac{10.2}{17}\) = 0.6

STP তে 1 মোল NH3 এর আয়তন 22.4 লিটার

∴ 0.6 মোল NH3 এর আয়তন (22.4 × 0.6) লিটার = 13.44 লিটার।

4.3 গ্যাসের আয়তন প্রসারণ গুণাঙ্কের সংজ্ঞায় কী কী স্থির থাকে? একটি অধাতুর নাম লেখো যেটি তাপের সুপরিবাহী।

উত্তর: গ্যাসের আয়তন প্রসারণ গুণাঙ্কের গ্যাসের চাপ ও ভর স্থির থাকে।

চাপ স্থির রেখে নির্দিষ্ট ভরের কোন গ্যাসের উষ্ণতা 0°C থেকে 1°C বৃদ্ধি করতে গ্যাসের প্রতি একক আয়তনে যে আয়তন প্রসারণ হয়, তাকে গ্যাসের আয়তন প্রসারণ গুণাঙ্ক বলে।

একটি অধাতুর নাম হল তামা যেটি তাপের সুপরিবাহী।

অথবা

‘তামার দৈর্ঘ্য প্রসারণ গুণাঙ্ক 17 × 10-6/°C’ বলতে কী বোঝায়? এই মান কেলভিন স্কেলেও একই থাকে কেন?

উত্তর: তামার দৈর্ঘ্য প্রসারণ গুনাংক 17 × 10-6/°C মানে হলো, তাপমাত্রা 1°C বৃদ্ধি পেলে তামার দৈর্ঘ্য প্রতি মিটারে 17 × 10-6 মিটার পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।

দৈর্ঘ্য প্রসারণ গুণাংকের মান প্রতি ডিগ্রী সেলসিয়াসের উষ্ণতার পরিবর্তন বা স্থিতিশীলতা, প্রতি কেলভিনের উষ্ণতার পরিবর্তন বা স্থিতিশীলতার সাথে সমতুল্য, কারণ দৈর্ঘ্য প্রসারণ গুণাংকের একক দৈর্ঘ্য একে অপরের উপর নির্ভর করে না।

4.4 দন্ত চিকিৎসকরা কী ধরনের দর্পণ ব্যবহার করেন? কাচফলকের ফলে প্রতিসরণের আলোকরশ্মির চ্যুতি হয় না কেন?

উত্তর: দন্ত চিকিৎসকেরা অবতল দর্পন ব্যবহার করেন।

কাচফলকে ফলে প্রতিসরণের আলোকরশ্মির চ্যুতি হয় না কেন?

কাঁচের প্রতিসরণের ফলে আলোর রশ্মি চ্যুতি পায় না। কাঁচের মধ্যে আলোর রশ্মির প্রতিসরণে আপতন কোণ (i1) এবং নির্গত কোণ (i2) সর্বদা সমান। তাই, কাঁচের একপার্শ্বে যখন রশ্মি আপতিত হলে কাঁচের মধ্য দিয়ে গিয়ে অন্য পৃষ্ঠ থেকে নির্গত হলে তারা পরস্পরের সমান্তরাল হয়। তাই কৌণিক চ্যুতি শূন্য। এখানে আলোর রশ্মি পার্শ্ব সরণ করে। তাই, নির্গত রশ্মির কৌণিক চ্যুতি হয় না।

4.5 একটি উত্তল লেন্স থেকে 20 cm দূরে একটি বস্তু রাখার ফলে উৎপন্ন প্রতিবিম্ব লেন্সের কোনো দিকেই পাওয়া গেল না। ওই লেন্সের ফোকাস দূরত্ব কত? বায়ুর সাপেক্ষে কাচের প্রতিসরাঙ্ক 1.5 হলে কাচের সাপেক্ষে বায়ুর প্রতিসরাঙ্ক কত?

উত্তর:

একটি উত্তল লেন্স থেকে 20 cm দূরে একটি বস্তু রাখার ফলে উৎপন্ন প্রতিবিম্ব লেন্সের কোনো দিকেই পাওয়া গেল না। ওই লেন্সের ফোকাস দূরত্ব কত? বায়ুর সাপেক্ষে কাচের প্রতিসরাঙ্ক 1.5 হলে কাচের সাপেক্ষে বায়ুর প্রতিসরাঙ্ক কত?

লেন্সে কোনো দিকেই প্রতিবিম্ব দেখা যাচ্ছে না তাই রশ্মি সমান্তরাল ভাবে অসীমে ছড়িয়েছে। এটার মাধ্যমে বস্তুটি ফোকাস করা হয়েছে। ∴ ফোকাস দূরত্ব = 20cm

বায়ু সাপেক্ষে কাঁচের প্রতিসরাঙ্ক = \({{}_a\mu}_g=1.5=\frac32\)

∴ কাঁচ সাপেক্ষে বায়ুর প্রতিসরাঙ্ক = \({}_g\mu_a=\frac1{{{}_a\mu}_g}=\frac23\) = 0.67

অথবা

একটি বস্তুর দৈর্ঘ্য 5cm। এটিকে উত্তল লেন্সের সামনে 2cm দূরত্বে রেখে 10cm দৈর্ঘ্যের প্রতিবিম্ব পাওয়া গেল। রৈখিক বিবর্ধন ও প্রতিবিম্ব দূরত্ব কত?

উত্তর: বস্তুর দৈর্ঘ্য = 5 cm., প্রতিবিম্বের দৈর্ঘ্য = 10cm., বস্তু দূরত্ব = 2cm.

∴ রৈখিক বিবর্ধন = প্রতিবিম্বের দৈর্ঘ্যবস্তুর দৈর্ঘ্য=105 = 2cm.

আবার, রৈখিক বিবর্ধন = প্রতিবিম্বের দূরত্ববস্তুর দুরত্ব

∴ প্রতিবিম্বের দুরত্ব = রৈখিক বিবর্ধন × বস্তুর দুরত্ব = 2 × 2 = 4cm.

4.6 জলবিদ্যুৎ উৎপাদনে ভিত্তিগত কৌশলটি সংক্ষেপে লেখো।

উত্তর: জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের প্রক্রিয়া –

জলাধারে জল সংগ্রহ – নদীর উপরে বাঁধ নির্মাণ করে জলাধার তৈরি করা হয়। বৃষ্টির জল, বরফ গলে ঝর্ণা থেকে আসা জল, নদীর জল এই জলাধারে জমা হয়।

জলের উচ্চতা বৃদ্ধি – জলাধারের পানি যাতে পর্যাপ্ত উচ্চতায় পৌঁছাতে পারে, সেজন্য টানেল বা পাইপলাইনের মাধ্যমে জলকে উঁচুতে নিয়ে যাওয়া হয়।

গতিশক্তি তৈরি – উঁচু থেকে নিচে পতিত হওয়ার সময় পানি প্রচুর গতিশক্তি অর্জন করে।

টারবাইন ঘোরানো – নীচে পতিত হওয়া দ্রুতগতির পানি টারবাইনের ব্লেডগুলিকে আঘাত করে। টারবাইনের ব্লেড ঘুরতে থাকে।

বিদ্যুৎ উৎপাদন – টারবাইনের সাথে সংযুক্ত ডায়নামোর কুণ্ডলী ঘোরে। ডায়নামোতে তড়িৎ প্রবাহ উৎপন্ন হয়। এই তড়িৎ প্রবাহ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে সরবরাহ করা হয়।

জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে উঁচু থেকে নিচে পতিত পানির গতিশক্তি ব্যবহার করে টারবাইন ঘোরানো হয়। টারবাইনের সাথে সংযুক্ত ডায়নামো তড়িৎ প্রবাহ উৎপন্ন করে, যা বিদ্যুৎ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

4.7 একটি বৈদ্যুতিক বাতিকে 220V মেইনসের সঙ্গে যুক্ত করলে 1A তড়িৎ প্রবাহ ঘটে। ওই বাতিকে 110V মেইনসের সঙ্গে যুক্ত করলে কত তড়িৎ প্রবাহ হবে?

উত্তর:

বৈদ্যুতিক বাতির রোধ = বিভব প্রভেদতড়িৎ প্রবাহমাত্রা=2001 = 220ohm

এখন, বিভব প্রভেদ 110V করা হলে,

তড়িৎ প্রবাহমাত্রা (I) = বিভব প্রভেদরোধ=110220 = 0.5A

∴ ওই বাতিকে 110V মেইনসের সঙ্গে যুক্ত করলে 0.5A তড়িৎ প্রবাহ হবে।

অথবা 220V – 60W ও 110V – 60W দুটি বাতির রোধের অনুপাত নির্ণয় করো।

উত্তর:

রোধ (R) = বিভব প্রভেদ2ক্ষমতা=V2P [যেহেতু, P=V2R]

প্রথম ক্ষেত্রে রোধ\(\left(R_1\right)=\frac{\left(220\right)^2}{60}\)ohm

দ্বিতীয় ক্ষেত্রে রোধ\(\left(R_2\right)=\frac{\left(110\right)^2}{60}\)ohm

∴ \(\frac{R_1}{R_2}=\frac{\left(220\right)^2}{\left(110\right)^2}=\frac41\)

R1 : R2 = 4 : 1

∴ রোধের অনুপাত 4 : 1

4.8 কোনো তেজস্ক্রিয় মৌলের থেকে α কণা নির্গমনে নতুন মৌলের সৃষ্টি হয় কিন্তু γ-রশ্মি নির্গমনে নতুন মৌলের সৃষ্টি হয় না কেন ব্যাখ্যা করো।

উত্তর: যখন একটি নিউক্লিয়াস থেকে একটি α কণা বের হয়, মৌলটির ভর সংখ্যা 4 একক কম হয় এবং পরমাণু ক্রমাঙ্ক 2 একক কম হয়। পরমাণু ক্রমাঙ্ক পরিবর্তনের কারণে, এই প্রক্রিয়ায় নতুন মৌল উত্পন্ন হয়। তবে, যখন γ রশ্মি উৎপন্ন হয়, পরমাণুর ভর সংখ্যা বা পরমাণু ক্রমাঙ্কে কোন পরিবর্তন ঘটে না, এবং তাই নতুন মৌল সৃষ্টি হয় না।

4.9 ডোবেরাইনারের ত্রয়ী সূত্রটি লেখো। Cl, Br, I, F-কে তাদের জারণ ক্ষমতার ঊর্ধ্বক্রমে সাজাও।

উত্তর: পর্যায় সারণির দুটি মৌলের পারমাণবিক ভরের গড় অন্য একটি মৌলের পারমাণবিক ভরের প্রায় সমান এবং মৌল তিনটির ধর্ম একই রকম। এই তিনটি মৌলকে পারমাণবিক ভর অনুসারে সাজালে প্রথম এবং তৃতীয় মৌলের ভরের গড় দ্বিতীয় মৌলের ভরের সমান হয়।

Cl, Br, I, F-কে তাদের জারণ ক্ষমতার ঊর্ধ্বক্রমে সাজিয়ে পাই – I < Br < Cl < F

অথবা

মোজলের পরীক্ষার গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত কী? পর্যায় সারণিত ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্তের গুরুত্ব কী?

উত্তর: মোজলের পরীক্ষার গুরুত্বপূর্ন সিদ্ধান্ত – মৌলের রাসায়নিক ধর্ম পরমাণুর নিউক্লিয়াসে উপস্থিত মোট প্রোটন সংখ্যা বা পরমাণু ক্রমাঙ্কের ওপর নির্ভর করে, পারমাণবিক গুরুত্বের ওপর নয়।

এই সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করে মেন্ডেলিফের পর্যায় সূত্রটি সংশোধিত হয়েছে। এই সূত্রের সংশোধিত রূপ হল – বিভিন্ন মৌলের – ভৌত ও রাসায়নিক ধর্ম গুলি তাদের পারমাণবিক সংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে পর্জায়ক্রমে পুনরাবৃত্ত হয়।

4.10 ধাতব তারের মধ্য দিয়ে তড়িৎ পরিবহন এবং তড়িৎ বিশ্লেষণের সময় তড়িৎ-বিশ্লেষ্যের মধ্য দিয়ে তড়িৎ পরিবহনের মধ্যে দুটি পার্থক্য লেখো। তড়িৎ বিশ্লেষণ পদ্ধতিতে কপার ধাতুর পরিশোধনে অবিশুদ্ধ কপার দণ্ড কোন্ ইলেকট্রোড রূপে ব্যবহার করা হয়?

উত্তর: ধাতব তারের মধ্য দিয়ে তড়িৎ পরিবহন এবং তড়িৎ বিশ্লেষণের সময় তড়িৎ-বিশ্লেষ্যের মধ্য দিয়ে তড়িৎ পরিবহনের মধ্যে দুটি হল –

ধাতব পরিবাহীর মধ্য দিয়ে তড়িৎ পরিবহনতড়িৎ বিশ্লেষ্যের মধ্যে দিয়ে তড়িৎ পরিবহন
ধাতব পরিবাহীর মধ্য দিয়ে তড়িৎ প্রবাহের ফলে কেবল মাত্র ভৌত পরিবর্তন ঘটে।তড়িৎ বিশ্লেষ্যের মধ্যে দিয়ে তড়িৎ প্রবাহের ফলে রাসায়িক পরিবর্তন ঘটে।
এক্ষেত্রে মুক্ত ইলেকট্রন তড়িৎ পরিবহন করে।এক্ষেত্রে ক্যাটায়ন ও অ্যানায়ন তড়িৎ পরিবহন করে।

তড়িৎ বিশ্লেষন পদ্ধতিতে কপার ধাতুর পরিশোধনে অবিশুদ্ধ কপার দন্ড অ্যানোড ইলেকট্রোড রূপে ব্যবহার করা হয়।

4.11 ইউরিয়ার শিল্পোৎপাদনে ব্যবহৃত রাসায়নিক পদার্থগুলির নাম ও বিক্রিয়ার সমিত রাসায়নিক সমীকরণ লেখো।

উত্তর: ইউরিয়া শিল্প উৎপাদনে ব্যবহিত রাসায়নিক পদার্থ গুলির নাম হল – অ্যামোনিয়া ও কার্বন ডাইঅক্সাইড।

প্রথম ধাপে

অ্যামোনিয়া ও কার্বন ডাইঅক্সাইড পরস্পর বিক্রিয়া করে অ্যামোনিয়াম কার্বামেট উৎপন্ন করে।

2NH3 + CO2H2NCOONH4

দ্বিতীয় ধাপে

অ্যামোনিয়াম কার্বামেট বিয়োজিত হয়ে ইউরিয়া উৎপন্ন করে।

H2NCOONH4 → H2NCONH2 + H2O

4.12 (A) ও (B) 2টি করে কার্বন পরমাণুযুক্ত দুটি অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন, ব্রোমিনের সঙ্গে বিক্রিয়ায় (A) তে অণু প্রতি 2 অণু ব্রোমিন ও (B) তে অণু প্রতি 2 অণু ব্রোমিন যুক্ত হয়। (A) ও (B) র গঠন সংকেত লেখো।

উত্তর: (A) 2 টি কার্বন পরমানুযুক্ত একটি অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন। ব্রোমিনের সঙ্গে বিক্রিয়া (A) – তে অনু প্রতি 1 অনু ব্রোমিন যুক্ত হয়।

সুতরাং,

2 টি কার্বন পরমানুযুক্ত একটি অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন। ব্রোমিনের সঙ্গে বিক্রিয়া (A) -তে অনু প্রতি 1 অনু ব্রোমিন যুক্ত হয়।

(B) 2 টি কার্বন পরমানুযুক্ত একটি অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন। ব্রোমিনের সঙ্গে বিক্রিয়া (B) – তে অনু প্রতি 2 অনু ব্রোমিন যুক্ত হয়।

উত্তর:

2টি করে কার্বন পরমাণুযুক্ত দুটি অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন, ব্রোমিনের সঙ্গে বিক্রিয়ায় (A) তে অণু প্রতি 2 অণু ব্রোমিন ও (B) তে অণু প্রতি 2 অণু ব্রোমিন যুক্ত হয়।

অতএব, A ও B – এর গঠন সংকেত হল –

2টি করে কার্বন পরমাণুযুক্ত দুটি অসম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন, ব্রোমিনের সঙ্গে বিক্রিয়ায় (A) তে অণু প্রতি 2 অণু ব্রোমিন ও (B) তে অণু প্রতি 2 অণু ব্রোমিন যুক্ত হয়।

(B) এর সঙ্গে ব্রোমিনের বিক্রিয়ার সমিত রাসায়নিক সমীকরণ লেখো।

উত্তর: B অর্থাৎ অ্যাসিটিলিন – এর সঙ্গে ব্রোমিনের বিক্রিয়ায় 1,2 – ডাইব্রোমোইথিন উৎপন্ন হয়।

অ্যাসিটিলিন -এর সঙ্গে ব্রোমিনের বিক্রিয়ায় 1,2- ডাইব্রোমোইথিন উৎপন্ন হয়।

অথবা

অ্যাসিটিক অ্যাসিডের সঙ্গে সোডিয়াম হাইড্রক্সাইডের বিক্রিয়ার সমিত রাসায়নিক সমীকরণ লেখো। প্যাকেজিং – এ ব্যবহারের জন্য পাট ও পলিথিনের মধ্যে কোনটি পরিবেশ বান্ধব এবং কেন?

উত্তর: অ্যাসিটিক অ্যাসিডের সাথে সোডিয়াম হাইড্রোক্সাইডের প্রতিক্রিয়ায় সোডিয়াম এসিটেট বা সোডিয়াম ইথানোয়েট নামক লবন এবং জল উৎপন্ন হয়।

CH3COOH + NaOH → CH3COONa + H2O

প্যাকেজিং-এ ব্যবহারের জন্য পাট এবং পলিথিন, দুটিই জনপ্রিয় বিকল্প। তবে, পরিবেশের উপর তাদের প্রভাব বিবেচনা করলে, পাট স্পষ্টভাবে এগিয়ে থাকে।

পাট পরিবেশ বান্ধব কেন?

  • প্রাকৃতিক পলিমার – পাট প্রাকৃতিকভাবে উৎপন্ন পলিমার, সেলুলোজ দ্বারা তৈরি।
  • জৈব বিশ্লেষ্যযোগ্য – ব্যবহারের পর, পাটের পণ্য সহজেই প্রকৃতিতে বিঘটিত হয়ে মাটিতে মিশে যায়।
  • পরিবেশগত ক্ষতি নেই – ফলে, পাটের ব্যবহার পরিবেশের উপর কোন নেতিবাচক প্রভাব ফেলে না।

অন্যদিকে, পলিথিন –

  • জৈব বিশ্লেষ্যযোগ্য নয় – প্লাস্টিক দীর্ঘ সময় ধরে পরিবেশে টিকে থাকে, মাটি ও জল দূষণের কারণ হয়ে ওঠে।
  • বর্জ্য পদার্থ – ব্যবহারের পর প্লাস্টিক বর্জ্য পদার্থে পরিণত হয়, যা পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর।


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন