মালনাদ ও ময়দান কি? মালনাদ ও ময়দানের মধ্যে পার্থক্য

ভারতের ভূপ্রকৃতি বৈচিত্র্যপূর্ণ এবং দুটি প্রধান ভাগে বিভক্ত – মালনাদ এবং ময়দান। এই দুটি অঞ্চলের মধ্যে পার্থক্য বোঝা ভূগোলের একটি গুরুত্বপূর্ণ ধারণা, বিশেষ করে দশম শ্রেণীর পরীক্ষার জন্য। এই ব্লগ পোস্টে, আমরা মালনাদ এবং ময়দানের সংজ্ঞা, তাদের বৈশিষ্ট্য এবং তাদের মধ্যে মূল পার্থক্যগুলি বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব।

মালনাদ

স্থানীয় কানাড়া ভাষায়, “মালনাদ” শব্দের অর্থ “উঁচু-নীচু” বা “পাহাড়ি দেশ”। “Male” শব্দের অর্থ “পাহাড়” এবং “Nadu” শব্দের অর্থ “দেশ”।

পশ্চিমঘাট পর্বতমালার পূর্ব পাশে অবস্থিত কর্ণাটক মালভূমির পশ্চিম অংশের উঁচু-নিচু ঢেউ খেলানো পাহাড়ি অঞ্চলকে মালনাদ বলে।

বৈশিষ্ট্য

  • বিস্তার – উত্তর-পশ্চিম থেকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব 320 কিলোমিটার লম্বা এবং 35 কিলোমিটার চওড়া এই মালনাদ মালভূমি।
  • উচ্চতা – মালনাদ মালভূমির উচ্চতা 600 মিটারের বেশি।
  • প্রকৃতি – মালনাদ মালভূমি উপরিভাগ উঁচু-নীচু ঢেউখেলানো, অর্থাৎ মালনাদ মালভূমি প্রকৃতপক্ষে একটি ব্যবচ্ছিন্ন মালভূমি।
  • পাহাড়চূড়া – মালনাদ মালভূমির পাহাড়গুলির চূড়া প্রায় গোলাকার প্রকৃতির। এর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মুলানগিরি।
  • শিলার প্রকৃতি – মালনাদ মালভূমি প্রধানত গ্রানাইট ও নিস শিলা দ্বারা গঠিত।
  • মাটির রঙ – মালনাদ মালভূমি অঞ্চলে মাটির রঙ হল লাল।

মালনাদের গুরুত্ব

  • মালনাদ অঞ্চল প্রচুর বৃষ্টিপাত পায়, যা এটিকে কৃষিকাজের জন্য উপযুক্ত করে তোলে।
  • এই অঞ্চলে কফি, চা, মরিচ এবং এলাচের মতো মূল্যবান ফসল উৎপাদিত হয়।
  • মালনাদ তার খনিজ সম্পদের জন্যও পরিচিত, যার মধ্যে রয়েছে লোহা, ম্যাঙ্গানিজ এবং বক্সাইট।
  • এই অঞ্চল তার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং জীববৈচিত্র্যের জন্যও বিখ্যাত। এখানে বেশ কয়েকটি জাতীয় উদ্যান এবং অভয়ারণ্য রয়েছে।

ময়দান

কর্ণাটক মালভূমির পূর্বের সমতল এবং মৃদু ঢেউ খেলানো অংশকে ময়দান বলা হয়। মালনাদ মালভূমির পূর্বদিকে অবস্থিত কর্ণাটক মালভূমির পূর্বাংশই ময়দান নামে পরিচিত।

বৈশিষ্ট্য –

  1. ময়দান প্রায় সমতল ভূমি।
  2. ময়দানের গড় উচ্চতা 600 মিটারের কম।
  3. এই অঞ্চল গ্রানাইট এবং নিস শিলা দিয়ে গঠিত।
  4. ময়দান অঞ্চলে গ্রানাইট শিলা দ্বারা গঠিত অনেক অনুচ্চ পাহাড় বা মোনাডনক দেখা যায়।
  5. এখানকার মৃত্তিকা লাল বর্ণের।

গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

  • ময়দান অঞ্চল কৃষিকাজের জন্য উপযোগী।
  • লাভা প্রবাহ থেকে উৎপন্ন কালো মৃত্তিকা এই অঞ্চলের উর্বরতা বৃদ্ধি করেছে।
  • ময়দান অঞ্চলে ধান, জোয়ার, বাজরা, তুলা এবং শসা উৎপাদিত হয়।

মালনাদ ও ময়দানের পার্থক্য

মালনাদ ও ময়দানের পার্থক্যগুলি হল —

বিষয়মালনাদময়দান
অবস্থানকর্ণাটক মালভূমির পশ্চিমের অংশ মালনাদ নামে পরিচিত।কর্ণাটক মালভূমির পূর্বদিক ময়দান নামে পরিচিত।
অর্থমালনাদ শব্দের অর্থ পাহাড়ি দেশ।ময়দান কথার অর্থ নাতিউচ্চ ভূমিভাগ।
প্রকৃতিমালনাদ একধরনের ব্যবচ্ছিন্ন মালভূমি।ময়দান একধরনের সমপ্রায় সমভূমি।

আজকের আর্টিকেলে আমরা মালনাদ ও ময়দান সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আমরা দেখেছি যে এ দুটি ভৌগোলিক অঞ্চল কীভাবে ভিন্ন। এই তথ্য দশম শ্রেণীর ভূগোল পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি মাধ্যমিক ভূগোলের পঞ্চম অধ্যায় “ভারতের প্রাকৃতিক পরিবেশ”-এর “ভারতের ভূপ্রকৃতি” বিভাগের অন্তর্ভুক্ত।

5/5 - (1 vote)


Join WhatsApp Channel For Free Study Meterial Join Now
Join Telegram Channel Free Study Meterial Join Now

মন্তব্য করুন